গঙ্গা ব্যারেজ ও উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি

আপডেট: জানুয়ারি ২৮, ২০২০, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


সাপোর্ট টু ইমপ্লিমেন্টেশন বাংলাদেশ ব-দ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ আয়োজনের বরেন্দ্র এবং খরাপ্রবণ অঞ্চল নিয়ে মতবিনিময় সভায় স্থানীয় অংশগ্রহণকারীদের দাবি গঙ্গা ব্যারেজ ও উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন করতে হবে।
গতকাল সোমবার নগরীর একটি কনভেনশন হলে মাঠ পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট জনগণ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের সাথে প্রকল্প সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে পরিকল্পনাকে টেকসই ও সময়পোযোগী করে তোলার লক্ষ্যে এক কর্মশালার আয়োজন করা হয়। সেখানে বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ (জিইডি) এর সিনিয়র পানি বিশেষজ্ঞ জাকির হোসেন পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে প্রকল্পগুলো তুলে ধরেন। এসময় তিনি বলেন, দেশের মধ্যে রাজশাহী অঞ্চলেই বেশি পানির স্তর নিচে নেমে গেছে। যেটা খুবই অস্বাভাবিক বিষয়। তাই পানির স্তর ঠিক রেখে আগামী পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় আঞ্চলিক ব-দ্বীপ পরিকল্পনার কিছু প্রকল্প সংযুক্ত করা হবে। সেখানে আপনাদের মতামতের ভিত্তি নিয়ে প্রকল্পগুলো সরকারের নীতিনির্ধারক পর্যায়ে তুলে ধরা হবে।
তিনি কর্মশালায়, উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্প, কুড়িগ্রাম সেচ প্রকল্প, চলন বিল পুনরুদ্ধার এবং পুনর্জীবন প্রকল্প, বরেন্দ্র অঞ্চল মৎস্য উন্নয়ন প্রকল্প, হুরাসাগর এবং আত্রাই নদীর পুনর্জীবন ও পুনরুদ্ধার প্রকল্প, গঙ্গা ব্যারেজ ও উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্পের পানি ব্যবস্থাপনা সংগঠন এবং অংশগ্রহণমূলক স্কিম ব্যবস্থাপনা মডেলের রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয় সংকুলানসহ উন্নয়ন, মহানন্দা সেচ প্রকল্পের পানি সংগঠনের উন্নয়নসহ বেশ কিছু সম্ভাব্য প্রকল্প তুলে ধরা হয়।
মতবিনিময়ে অন্যদের মধ্যে অংশ নেন, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব-খনিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর খন্দকার এনামুল হক, প্রফেসর মিজানুর রহমান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাজশাহী কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী কহিনুর আলম, পরিবেশ অধিদফতরের রাজশাহীর উপপরিচালক মামুন উর রশিদ, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) রাজশাহী কমিটির সভাপতি জামাত খান, বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের তানোর কার্যালয়ের সহকারী প্রকৌশলী শরীফুল হক, ডাসকোর নির্বাহী কর্মকর্তা আকরামুল হক প্রমূখ। মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণকারীরা বলেন, পরিবেশ ঠিক রেখে রাজশাহী অঞ্চলের কোনো ক্ষতি না হয় সে দিকটা লক্ষ্যে রেখে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ