গভীর সংকটে সুদান, সামরিক শাসনের দাবিতে উত্তাল রাজধানী

আপডেট: অক্টোবর ১৭, ২০২১, ১:৫৩ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক


সুদানে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ঘনীভূত হওয়ায় সামরিক অভ্যুত্থানের দাবিতে রাজপথে বিক্ষোভে নেমেছে দেশটির হাজার হাজার মানুষ। শনিবার রাজধানী খার্তুমে গণতন্ত্র বিরোধীরা সেনাবাহিনীকে দেশের ক্ষমতা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ¯েøাগান দেন। সহিংসতা ঠেকাতে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক নিরাপত্তা সদস্য।
২০১৯ সালে প্রবল আন্দোলনের মুখে ক্ষমতাচ্যুত হন সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশির। এরপর আলোচনার মাধ্যমে ক্ষমতা ভাগাভাগি করে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নেয় সেনাবাহিনী ও বেসামরিক দল। কিন্তু এতে দেশটির অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক এবং খাদ্য সংকট আরও বেড়েছে। এ অব্স্থায় রাজপথে নেমেছে জনগণ।

গত সেপ্টেম্বরে সাবেক প্রেসিডেন্ট বশিরের সমর্থকদের অভ্যুথান চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পরই দেশটিতে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। তখন সামরিক নেতারা ফোর্সেস অব ফ্রিডম অ্যান্ড চেঞ্জ (এফএফসি) জোটের সংস্কারের জোর দাবি জানান। এমকি বর্তমান মন্ত্রিসভার পরিবর্তনেরও দাবি তুলে সশস্ত্র বাহিনী। তবে বেসামরিক দলের প্রতিনিধিদের অভিযোগ, সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখলের পাঁয়তারা চালাচ্ছে।

এমন পরিস্থিতির মধ্যেই শনিবার রাস্তায় নেমেছেন সামরিকপন্থী সমর্থকেরা। জেনারেল আব্দেল ফাত্তাহ আল-বুরহানকে দেশের দায়িত্ব নেওয়া আহŸান জানান আন্দোলনকারীরা। বিক্ষুব্ধদের প্রেসিডেন্ট প্যালেসের সামনে অবস্থান নিতে দেখা গেছে। এক বিক্ষোভকারী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা সামরিক সরকার চাই, বর্তমান সরকার বিচার ও সমতা আনতে পুরোপুরি ব্যর্থ’।
এই আন্দোলন সামনে আরও জোরালো হওয়ার আশঙ্কা করছেন দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ