গরমে জীবন অতিষ্ঠ, স্বস্তির খোঁজে নগরবাসী

আপডেট: মে ২৪, ২০১৭, ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে একদিকে জ্যৈষ্ঠের তাপদাহ, অন্যদিকে লোডশেডিং। গরমে অতিষ্ঠ মানুষ ও বিপর্যস্ত জনজীবন। কদিন থেকে গরম নিয়ে সরগরম প্রকৃতি৷ গরম থেকে স্বস্তি পেতে দিন গুণছেন নগরবাসী। এমতাবস্থায় কেউ কেউ ঠান্ডা পানি, ডাবের পানি ও আখের রসসহ ফলের শরবত পান করছেন। আবার কেউ দীর্ঘক্ষণ পুকুর বা লেকে গোসল করছেন।
কয়েকদিন ধরেই তাপপ্রবাহ চলছে রাজশাহীসহ দেশজুড়ে। গরমে চরম বিপদে পড়েছেন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী ও খেটে খাওয়া দিনমজুর। গরম মৌসুমে লোড শেডিং হওয়াটা নিয়মে পরিণত হওয়ার মতো হয়ে দাঁড়িয়েছে। এতে বিপর্যস্ত নগরবাসী।
গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী আবহাওয়া অধিদফতরের উচ্চ পর্যবেক্ষক শহীদুল ইসলাম বলেন, আকাশে কালো মেঘ ও হালকা বৃষ্টি শুরু হয়। শুন্য দশমিক ৬ মিলি মিটির বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক ২ ও সর্বনি¤্ন তাপমাত্রা ছিল ২৬ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল ৬টায় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল শতকরা ৮৯ ভাগ ও সন্ধ্যা ৬টায় শতকরা ৬০ ভাগ ছিল।
নগরীতে বেশ কয়েকদিন থেকে বৃষ্টির দেখা নেই। ফলে সূর্যের তাপে প্রকৃতির তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তপ্ত থাকছে পরিবেশ। গতকাল সন্ধ্যার পর থেকে হঠাৎ আকাশে কালো মেঘ জমতে থাকে। সন্ধ্যাপর হঠাৎ হালকা বাতাসের সঙ্গে বৃষ্টি হয়। আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে, নগরীর বিভিন্ন এলাকায় হালকা বৃষ্টি হয়েছে। এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত শুন্য দশমিক ৬ মিলিমিটর বৃষ্টিপাত হতে থাকে।
নগরীতে যেভাবে তাপদাহ চলছে তাতে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের স্কুলে যাওয়া-আসা, শ্রমজীবী মানুষের জীবীকা অর্জনে বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ এ অবস্থায় এ তাপদাহের হাত থেকে রক্ষার জন্য বাড়ির বাইরে বের হওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে।