গল্প নয় সত্যি, এই সদ্যোজাতর নাম ‘GST’

আপডেট: জুলাই ৩, ২০১৭, ১:০২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আলাপ করুন এই সদ্যোজাতর সঙ্গে। নাম জিএসটি। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। সদ্যোজাতর নাম জিএসটি। চিন্তা করবেন না। এর সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য কোনও কর দিতে হবে না। গোটা ভূ-ভারতে এমন নামের আর কেউ আছে কিনা সন্দেহ। তবে নিজের পুত্র সন্তানের জন্য জিএসটি নামটিই বেছে নিয়েছেন মা। পার্থক্য একটাই। শিশুর নামের পুরো মানে অবশ্য ‘গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স’ নয়। শুধুই জিএসটি।
কিন্তু কেন এমন নাম দেয়া হয়েছে শিশুর? তার পরিবারের তরফে জানানো হয়, ৩০ জুন মধ্যরাত ১২ টা ২ মিনিটে রাজস্থানের বেওয়ায় জন্ম হয় তার। আর ঠিক সেই সময়ই গোটা দেশ এক নয়া কর ব্যবস্থার বিপ্লবের সাক্ষি হয়। একগুচ্ছ করের বিদায় ঘটিয়ে চালু হয় জিএসটি। ৩০ জুন মধ্যরাতে সংসদে ‘এক দেশ, এক কর’ প্রথার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। জিএসটি চালুর মুহূর্তে জন্ম নেয়ার কারণেই শিশুর নাম রাখা হয়েছে জিএসটি। যাতে কারও বুঝতে অসুবিধা না হয়, যে কোন ঐতিহাসিক দিন ভূমিষ্ঠ হয়েছিল সে। মজার বিষয় হল, জন্মের পরই রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজের নজর কেড়েছে বাচ্চাটি। টুইট করে ছোট্ট জিএসটি’র সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করেছেন তিনি।
প্রসঙ্গত, পণ্য ও পরিষেবা করের একাধিক স্তর রয়েছে। তা নিয়ে নানা মহলে প্রশ্নের মুখে পড়েও সিদ্ধান্তের পক্ষেই সওয়াল করেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। শুধু তাই নয়, কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা পরিকাঠামো ও সরকারি প্রস্তুতি নিয়ে সমালোচনা করেছিল। কিন্তু জেটলি আশ্বাস দেন, কর সংস্কারের পর জিএসটি খুব সুষ্ঠুভাবেই চালু হয়ে যাবে। কোথাও কোনও সমস্যা হবে না। তবে ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে জিএসটি পরিকাঠামোয় সড়গড় হতে হয়তো সময় লাগবে। সেক্ষেত্রে সরকার যথেষ্ট উদার দৃষ্টিভঙ্গিতেই পরিস্থিতির বিচার করবে। অন্তত প্রথম দু’মাস খুব কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে না বলেই আশ্বাস দিয়েছেন জেটলি।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন