গাছ না কেটে তৈরি হবে ভিক্টোরিয়া মেট্রো স্টেশন

আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০২৪, ৮:২৪ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:বেনজির ঘটনা ঘটাতে চলেছে কলকাতা মেট্রো। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল স্টেশনের জন্য গাছ কাটা হবে না। প্রস্তাবিত ফাউন্টেন অফ জয়ের সামনে থাকা ২৯টি সুবিশাল গাছ স্থানান্তর ও তাদের পুনর্জীবনের ব্যবস্থা করছে মেট্রো রেল। জোকা থেকে এসপ্ল্যানেড মেট্রো প্রকল্পের কাজে বহু কাঠখড় পোড়াতে হয় মেট্রো রেলকে। অবশেষে ভিক্টোরিয়া স্টেশনের জন্য ময়দানে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের উল্টোদিকে জায়গা পেয়েছে রেল। ভিক্টোরিয়া স্টেশনটি ভূগর্ভস্থ। দৈর্ঘ্য ৩২৫ মিটার। স্টেশনটি তৈরি হচ্ছে মাটির ১৪ দশমিক ৭ মিটার গভীরে।

ময়দানকে বলা হয় শহর কলকাতার ফুসফুস। সেখানে উনুন জ্বালানো বা গাড়ি পার্ক নিষিদ্ধ। এই অবস্থায় জটিলতা বাড়ে স্টেশনের জন্য প্রস্তাবিত প্রায় ৫০০ বর্গ-মিটার এলাকা নিয়ে। পুরান ২৯টি গাছের মাঝে আছে ৮০ বছরের প্রাচীন বট গাছ, ৫০/৬০ বছরের পুরান অশ্বত্থ বা দেবদারু গাছ, কৃষ্ণচূড়া ও রাধাচূড়া। পরিবেশবিদদের আপত্তি ছিল এই গাছগুলি কাটা ঘিরেই। বহু জটিলতা সামলে অবশেষে সমাধান সূত্র খুঁজে বের করে মেট্রো। এই ২৯ টি গাছ বাঁচিয়ে রাখা হবে। কাটা হবে না। অন্যান্য ক্ষেত্রে মেট্রো কাজের জন্য গাছ কাটে।

জাতীয় পরিবেশ আদালতের নিয়ম অনুযায়ী একটি গাছ ধ্বংস পিছু নতুন দশটি গাছ লাগায়। এবার তার ব্যতিক্রম। এবার এই ২৯ টি গাছ মাটির গভীরে গর্ত করে, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে, দক্ষ ব্যাক্তিদের কাজে লাগিয়ে ট্রান্সপ্লান্ট করবে মেট্রো। ২৯ টি গাছের নতুন ঠিকানা হতে চলেছে বেলেঘাটা বাইপাস লাগোয়া কামারডাঙ্গা এলাকা। এই কাজে মেট্রোকে সহযোগিতা করবেন আইআইটি গুয়াহাটির বিশেষজ্ঞরা। ২০২৬ সালের ডিসেম্বরের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ চলছে পার্পল লাইন মেট্রোর।
তথ্যসূত্র: আজকাল অনলাইন