গাজায় অস্ত্রবিরতির ঘোষণা ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের

আপডেট: আগস্ট ৮, ২০২২, ১২:১৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


তিন দিনের সহিংসতায় অন্তত ৪৪ জন নিহত হওয়ার পর ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী ইসলামিক জিহাদ অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দিয়েছে।
এ অস্ত্রবিরতি কার্যকরের মাধ্যমে এক বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে গাজায় শুরু হওয়া সবচেয়ে গুরুতর সংঘাত বন্ধ হওয়ায় আশা জাগতে শুরু করেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোর পুরোটা সময়জুড়ে ইসরায়েলি বাহিনীগুলো ফিলিস্তিনি লক্ষ্যস্থলগুলোতে একের পর এক আক্রমণ চালানোর পর স্থানীয় সময় রোববার রাত সাড়ে ১১টায় অস্ত্রবিরতি শুরু হলে হামলা বন্ধ হয়।
ইসলামিক জিহাদ ও ইসরায়েল, উভয় পক্ষই পৃথক বিবৃতির মাধ্যমে অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দেয় এবং এ বিষয়ে মধ্যস্থতার জন্য মিশরকে ধন্যবাদ জানায়।

তিন দিনের এই সংঘাতে গাজার পূর্ববর্তী যুদ্ধের লক্ষণগুলো ফুটে উঠলেও আগের তুলনায় কিছুটা সীমিত এবং নিয়ন্ত্রণের মধ্যে ছিল। কারণ গাজার ক্ষমতাসীন দল হামাস এই সংঘাত থেকে দূরে রয়েছে। হামাস ইরান-সমর্থিত ইসলামিক জিহাদ গোষ্ঠীর তুলনায় অনেক বেশি শক্তিশালী।

গাজার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এ সংঘাতে ৪৪ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, এদের অর্ধেকেই বেসামরিক এবং তাদের মধ্যে শিশুও রয়েছে।

অপরদিকে ইসলামিক জিহাদের ছোড়া রকেটগুলো ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে ভীতি ছড়িয়েছে এবং তেল আবিব ও আশকেলনসহ বিভিন্ন শহরের বাসিন্দাদের আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে বাধ্য করেছে।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ