গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নারী-শিশুসহ নিহত ৭১

আপডেট: অক্টোবর ১৭, ২০২৩, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে ইসরায়েলের বিমান হামলা অব্যাহত আছে। এরই মধ্যে সর্বশেষ এক বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ ৭১ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।
সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজার দক্ষিণাংশের একটি ভবনে ইসরায়েল ওই বিমান হামলা চালায়। হামলার পর প্রথমে ২৫ জনের ও পরে ৫৪ জনের মৃত্যুর কথা বলা হলেও পরে নিহতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৭১ জনে দাঁড়িয়েছে। এর আগে গাজার খান ইউনিস ও রাফাহ এলাকায় অবিরাম বোমা হামলার খবর পাওয়া গেছে।

গাজার একটি মেডিকেল সূত্র আরো জানিয়েছে, রাফাহ ও খান ইউনিসের বাড়িগুলোয় চালানো বোমা হামলায় আরো কয়েকশো মানুষ আহত হয়েছেন। এদিকে, এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি সেনাবাহিনি জানিয়েছে, তারা রাতে গাজা উপত্যকায় হামাস সদস্যদের অবস্থান লক্ষ্য করে দুই শতাধিক বোমা ছুঁড়েছে।
এদিকে আল জাজিরা বলছে, উত্তর গাজা উপত্যকার কিছু এলাকায় ইসরায়েলের ভারি গোলাবর্ষণের খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে হতাহতের ব্যাপারে তাৎক্ষণিক কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

এ মাসের ৭ অক্টোবর অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলে নজিরবিহীন রকেট হামলা চালায় ফিলিস্তিনের সশস্ত্রগোষ্ঠী হামাস। তারা ইসরায়েলে ঢুকে আক্রমণ শুরু করে। ওই হামলায় ইসরায়েলে প্রায় ১৪শো মানুষ নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ২৮৬ জন সেনাসদস্যও আছে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে।

ওই হামলার পরপরই হামাসকে নির্মূলের শপথ নিয়ে গাজায় পাল্টা বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েল। গাজায় টানা ৮ দিনের ইসরায়েলি বিমান হামলায় ২৮শো ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে আরো প্রায় ১১ হাজার মানুষ।
তথ্যসূত্র: আল জাজিরা, জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ