গাজায় প্রতি ১০ মিনিটে একটি শিশু নিহত হচ্ছে : ইউনিসেফ

আপডেট: অক্টোবর ৩১, ২০২৩, ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ছবি সংগৃহীত

সোনার দেশ ডেস্ক:


অবরুদ্ধ গাজার পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠছে। সেখানে সর্বক্ষণ প্রাণ হারাচ্ছে নিরীহ মানুষ। এর মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু। জাতিসংঘের ইউনিসেফ ফিলিস্তিনি শাখার আঞ্চলিক পরিচালক জেসন লি জানাচ্ছেন, গাজায় প্রতি ১০ মিনিটে একটি করে শিশু নিহত হচ্ছে।

জেরুজালেম থেকে বিবিসির সঙ্গে আলাপকালে ওই ইউনিসেফ কর্মকর্তা বলেন, গাজায় আহত ২০ হাজার বেসামরিক নাগরিকের ৩ জনের মধ্যে একজনই শিশু।

তিনি জানান, জনাকীর্ণ পরিস্থিতি ও স্বাস্থ্যবিধির অভাবে সেখানে সংক্রামক রোগ বাড়ছে। জেসন লি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, সেখানে ইনফ্লুয়েঞ্জা ছড়িয়ে পড়তে পারে। তার মতে, গাজায় যে পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা পাঠানো হয়েছে তা সাগরের মধ্যে এক ফোঁটা পানির মতো। সেখানে আরো বেশি খাবার, চিকিৎসা সরঞ্জাম ও জ্বালানির প্রয়োজন।

বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে সংঘাতে প্রতি বছর হাজার হাজার শিশুর মৃত্যু হচ্ছে। কিন্তু মাত্র কয়েক সপ্তাহে গাজায় যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে তা বিশ্বের যে কোনো প্রান্তের যে কোনো পরিস্থিতির চেয়ে অত্যন্ত ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। এর আগে ইউনিসেফ জানায়, ২০১৯-এর পর বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে সংঘাতের কারণে বছরে যত শিশুর মৃত্যু হয়েছে গত ৩ সপ্তাহে গাজায় তার চেয়ে বেশি শিশু নিহত হয়েছে।

রোববার (৩০ অক্টোবর) ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের উদ্ধৃতি দিয়ে শিশু বিষয়ক এই এনজিও একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ৭ অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত অবরুদ্ধ গাজায় প্রায় ৩ হাজার ৩২৪ টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও পশ্চিমতীরে আরও ৩৬ শিশু মারা গেছে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের এক প্রতিবেদনের তথ্যমতে, ২০২২ সালে ২৪টি দেশে মোট দুই হাজার ৯৮৫ জন শিশুর মৃত্যু হয়। ২০২১ সালে এ সংখ্যা ছিল দুই হাজার ৫১৫ এবং ২০২০ সালে ২২টি দেশে দুই হাজার ৬৭৪ শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ