গাজীপুরের মেয়র মান্নান ফের বরখাস্ত

আপডেট: জুলাই ৭, ২০১৭, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আইনি লড়াই চালিয়ে পদে ফেরার এক মাস না গড়াতেই ফের বরখাস্ত করা হল গাজীপুরের মেয়র এম এ মান্নানকে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এই বিএনপি নেতাকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। দুর্নীতি দমন কমিশনের এক মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আদালতে গৃহীত হওয়ায় আইন অনুযায়ী এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মান্নান ২০১৩ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীকে হারিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন।
কিন্তু এরপর নির্বিঘেœ দায়িত্ব পালন করতে পারেননি তিনি। এই নিয়ে তিন দফা বরখাস্ত হলেন তিনি। নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে তাকে কারাগারেও থাকতে হয়েছিল কিছু দিন। এক মামলায় মুক্তির পর আরেক মামলায়ও গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তাকে।
বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, বিরোধী দল থেকে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব পালন করতে না দেয়ার উদ্দেশ্যেই আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার মান্নানকে বরখাস্ত করছে।
নাশকতার এক মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র গৃহীত হওয়ার পর ২০১৫ সালের ১৯ অগাস্ট মান্নানকে প্রথম বরখাস্ত করেছিল স্থানীয় সরকার বিভাগ। উচ্চ আদালতে ওই আদেশ স্থগিত হলে ২৮ মাস পর পদ ফিরে পেয়েছিলেন তিনি।
কিন্তু চেয়ারে বসতে না বসতেই আরেক মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গৃহীত হলে গত বছরের ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয়বারের মতো তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।
ওই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টে গেলে পক্ষে আদেশ পান এই বিএনপি নেতা। এরপর গত ১৮ জুন পুনরায় মেয়রের চেয়ারে বসেন তিনি। তার ১৮ দিনের মধ্যে তাকে ফের বরখাস্ত করল সরকার।
মেয়রের আইনজীবী গাজীপুর আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর মোর্শেদ প্রিন্স বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এনিয়ে এম এ মান্নান তৃতীয়বারের মতো বরখাস্ত হলেন। এর আগে নাশকতার মামলায় ২০১৫ সালের ১৯ আগস্ট প্রথম এবং ২০১১৬ সালের ১৯ এপ্রিল দ্বিতীয় দফা বরখাস্ত হয়েছিলেন তিনি।”
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ