গান্ধীর স্মরণে কয়েন ছাড়ার কথা ভাবছে যুক্তরাজ্য

আপডেট: আগস্ট ২, ২০২০, ২:০২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের মহানায়ক মহাত্মা গান্ধীর স্মরণে একটি ধাতব মুদ্রা ছাড়ার কথা বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।
দেশটির রয়েল মিন্ট অ্যাডভাইজরি কমিটিকে (আরএএমসি) লেখা এক চিঠিতে ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী রিশি সুনাক কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় ও অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিশেষ বিশেষ ব্যক্তির অবদানকে স্বীকৃতি দিতে অনুরোধ করার পর যুক্তরাজ্যের ট্রেজারি এ কথা জানায় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।
“আরএএমসি এখন গান্ধীর স্মরণে একটি কয়েনের কথা ভাবছে,” শনিবার যুক্তরাজ্য ট্রেজারির এক ইমেইল বিবৃতিতে এমনটাই বলা হয়েছে।
১৮৬৯ সালে জন্ম নেওয়া গান্ধী জীবনভর অহিংস আন্দোলনের সপক্ষে প্রচার চালিয়েছেন, ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে তার ছিল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।
গান্ধীর জন্মদিন ২ অক্টোবর এখন সারাবিশ্বেই আন্তর্জাতিক অহিংস দিবস হিসেবে পালিত হয়।
ব্রিটিশ শাসনের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করার মাত্র কয়েক মাস পর ১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি ‘ভারতের জাতির জনক’ খ্যাত গান্ধী এক উগ্র হিন্দুত্ববাদীর গুলিতে নিহত হন।
মে’তে যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসে পুলিশ হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর শুরু হওয়া আন্দোলনের কারণে বিশ্বের অনেক অঞ্চলেই এখন ইতিহাস, ঔপনিবেশিকতা ও বর্ণবাদ সংক্রান্ত নানান বিষয় নিয়ে পুনর্মূল্যায়ন চলছে। সেই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্যের কিছু প্রতিষ্ঠানও তাদের অতীত পর্যালোচনা করে দেখছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।
দেশটির অনেক প্রতিষ্ঠান এখন কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় ও সংখ্যালঘু অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর (বিএএমই) সহায়তায় এবং বর্ণবৈচিত্রের সমর্থনে নানান পদক্ষেপ নিচ্ছে।
আরএমএসি’কে লেখা চিঠিতে সুনাক বলেছেন, বিএএমই সম্প্রদায়গুলোর সদস্যরা যে ‘অনবদ্য অবদান’ রেখেছেন যুক্তরাজ্যের মুদ্রাগুলিতে তার স্বীকৃতি থাকা উচিত।
বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত স্বতন্ত্র কমিটি আরএএমসি মূলত যুক্তরাজ্যের মুদ্রাগুলোর বিষয়বস্তু ও নকশা নিয়ে অর্থমন্ত্রীকে পরামর্শ দেয়।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ