গাড়িচাপায় নিহত নারীর মরদেহ হস্তান্তর, শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২২, ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রাইভেট কারের চাপায় নিহত হওয়া রুবিনা আক্তারের (৪৫) মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মরদেহ হস্তান্তর করে।
নিহত রুবিনা আক্তারের ভাই ও এই ঘটনায় হওয়া মামলার বাদী জাকির হোসেন বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে জানান, শনিবার বিকেল ৩টায় তিনি তার বোনের মরদেহ গ্রহণ করেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকালে দেবর নুরুল আমিনের সঙ্গে মোটরসাইকেলে রুবিনা আক্তার রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বাসা থেকে হাজারীবাগে বাবার বাসায় যাচ্ছিলেন। পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের বিপরীতে টিএসসি অভিমুখী সড়কে একটি প্রাইভেট কার পেছন থেকে তাদের ধাক্কা দেয়।

এতে নুরুল আমিন মোটরসাইকেলসহ এক পাশে ছিটকে পড়েন। রুবিনা প্রাইভেট কারের নিচে আকটে যান। ওই অবস্থায় চালক তাকে টেনেহিঁচড়ে নীলক্ষেত মোড় পর্যন্ত নিয়ে যান। পেছন থেকে লোকজন চিৎকার করলেও চালক কর্ণপাত করেননি। পরে নিলক্ষেত এলাকায় স্থানীয় লোকজন তাকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দেয়।

পরে পুলিশ খোঁজখবর নিয়ে জানায়, ওই চালক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক সহকারী অধ্যাপক আজহার জাফর শাহ ছিলেন।

এ ঘটনার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, ২০১৮ সালে আজহার জাফর শাহ নানা অভিযোগে চাকরিচ্যুত করা হয়।
শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর মোহাম্মদ জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে শুক্রবার গভীর রাতেই নিহত রুবিনা আক্তারের ভাই জাকির হোসেন সড়ক পরিবহন আইনে একটি মামলা করেছেন। রুবিনাকে গাড়িচাপা দিয়ে টেনে নেওয়া চালক আজহার জাফর শাহকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন