গুরুতর মানসিক রোগে আক্রান্ত ট্রাম্প, মত মার্কিন মনোবিদদের

আপডেট: এপ্রিল ২৩, ২০১৭, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


তাঁকে নিয়ে আলোচনার শেষ নেই৷ নানা মুনির নানা মত৷ বিতর্ক থেকে সমালোচনা, কোনওটাই বাদ নেই৷ তবুও ভোটে জিতে মার্কিন মসনদের বসার যোগ্যতা তিনিই অর্জন করেছেন৷ ডোনাল্ড জন ট্রাম্প৷ অবশ্য সেই যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে৷এবার নতুন প্রশ্ন তুললেন আমেরিকার ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল মনোবিদ৷ যাঁদের দাবি, গুরুতর মানসিক রোগে আক্রান্ত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প৷
সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছিল৷যাতে সামিল হয়েছিলেন ৩৫ জন মনোবিদ৷ প্রায় প্রত্যেকেই এ বিষয়ে একমত যে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের মানসিক পরিস্থিতি বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে৷অ্যান্টিসোশ্যাল পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডার রয়েছে তাঁর৷ভীষণই আত্মকেন্দ্রিক তিনি৷ হামেশাই হঠকারি সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রবণতা রয়েছে ট্রাম্পের মধ্যে৷যা মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে কোনও ব্যক্তির একদমই থাকা উচিত নয়৷ কেন এখন হঠাৎ এই দাবি করলেন মনোবিদরা? এই প্রশ্নের উত্তরে মনোবিদদের উত্তর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আমেরিকার পক্ষে কতটা বিপজ্জনক, সেই কথা তাঁদের জনসাধারণকে জানানো খুবই প্রয়োজন৷
এই একই মত পোষণ করেন সেমিনারে সামিল হওয়া নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তথা প্রখ্যাত মনোবিদ জেমস গিলিগানও৷এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “আমি খুনের অপরাধী এবং ধর্ষণকারীদের সঙ্গে দীর্ঘ দিন কাজ করেছি৷আর এই ধরনের বিপদের আঁচ অনেক দূর থেকেই পেয়ে যাই৷” আরও এক মনোবিদ জুডিথ হারমান মনে করেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের যে সত্যিই মানসিক সমস্যা রয়েছে তা বোঝার জন্য কোনও বিশেষজ্ঞের প্রয়োজন নেই৷ প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর তাঁর কীর্তিকলাপেই তা স্পষ্ট৷ সাধারণ মানুষই বলে দিতে পারবেন যে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট এই পদে থাকারই যোগ্য নন৷যদিও এখনও এই বিষয়ে প্রেসিডেন্টের কোনও মতামত পাওয়া যায়নি৷- সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ