গুরুদাসুপরে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মাঝে ভ্যান ও শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ

আপডেট: মার্চ ২২, ২০১৭, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

গুরুদাসপুর প্রতিনিধি



নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ও চাপিলা ইউনিয়নে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর  যুবক-যুবনারীদের আত্মকর্মসংস্থান তৈরির জন্য রিকসাভ্যান, সেলাই মেশিন ও প্রাথমিক শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৪টার দিকে জেলা প্রশাসক মোছা. শাহিনা খাতুন এসব উপকরণ বিতরণ করেন।
এ উপলক্ষে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. ইয়াসমিন আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্ব্বিক) ড. চিত্রলেখা নাজনীন, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম ছাড়াও নাজিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান শওকতরানা লাবু ও চাপিলা ইউপি চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন ভুট্টু বক্তব্য দেন।
উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ‘বিশেষ এলাকার জন্য উন্নয়ন সহায়তা’ শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় ওই দুইটি ইউনিয়নের কর্মক্ষম যুবকদের ২০টি রিকসাভ্যান, যুবনারীদের সাতটি সেলাই মেশিন ও ৭৮জন প্রাথমিক শিক্ষার্থীর মাঝে ৮শ টাকা করে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।
জেলা প্রশাসক তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রশাসনের কাছে খবর রয়েছে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কিছু মানুষ বাড়তি আয়ের পথ হিসেবে মাদক তৈরি, বিক্রি ও সেবনের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। এসব পথ থেকে ফেরাতেই প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দ থেকে এসব উপকরণ বিতরণ করা হচ্ছে।
অপরদিকে নারীর সুরক্ষায় গার্লস গাইডিং স্লোগানকে সামনে রেখে গুরুদাসপুর উপজেলা গার্লস গাইড অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে পুরস্কার বিতরণ করেন এসব অতিথিরা। বেগম রোকেয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজে দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত গার্লসগাইড সমাপনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী আঞ্চলিক গার্লস গাইড কমিশনার সিরাজুম মনিরা, জেলা কমিশনার বেগম হামিদা বানু, জেলা গার্লস গাইড সম্পাদিকা কামরুন্নাহার বেলি এবং উপজেলা গার্লস গাইড অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নিগার সুলতানা রেখা প্রমুখ। পুরস্কার বিতরণ শেষে গার্লস গাইড ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ