গুলিতে নিহত কলেজ শিক্ষকের লাশ দাফন || বাঘা-লালপুর সড়কে পথচারিদের মধ্যে আতঙ্ক

আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০১৭, ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


দূর্বৃত্তের গুলিতে নিহত কলেজ শিক্ষকের লাশ গতকাল শুক্রবার দুপুরে পারিবারিক গোস্থানে দাফন করা হয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি শিক্ষককের অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। এছাড়া শিক্ষকের জানাযা নামাজের মুসল্লিরা বলেন, রাজশাহীর বাঘা ও নাটোরের লালপুর, বাগাতিপাড়া সড়ক দিয়ে দিনের বেলায় চলাচলে নিশ্চিয়তা পাচ্ছেনা শিক্ষকসহ পথচারিরা। প্রতিনিয়িত ঘটছে ছিনতাইসহ খুন। অভিযোগ করলেও কোন আসামীকে আটক করতে পারছেনা পুলিশ।
জানা যায়, ২ জানয়ারি বেলা ৩টার দিকে বাঘা উপজেলার আড়ানী-বাঘা সড়কের পাঁচপাড়া আখক্রয় কেন্দ্রের সামনে উপজেলা বাউসা হেদাতিপাড়া গ্রামের আবদুল আজিজ ব্যাটারি চালিত ভ্যান গাড়িতে করে তার নববিবাহিত মেয়ে তসলিমা আক্তারকে নিয়ে আড়ানী বাজার থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। এ সময় দূর্বৃত্তরা তাদের মোটরসাইকেল নিয়ে পথরোধ করে। তাদের কাছে থাকা নগদ ৪০ হাজার টাকা, হাতের বালা, কানের দুল, ও গলার হার ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। একই দিনে উপজেলা দিঘা স্কুল ও কলেজের ভূগোল বিভাগের শিক্ষক সাইদুর রহমান কলেজ শেষে ডিসকভার ১২৫ সিসি কালো রঙ্গের মোটরসাইকেল নিয়ে বেলা ১টার দিকে নিজ বাড়ি বাগাতিপাড়ার চিথলিয়া গ্রামে যাচ্ছিলেন। এসময় দূর্বৃত্তরা দিঘা-চিথলিয়া সড়কের মিল মাঠের ফাঁকা স্থানে তার পথরোধ করে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই করে নেয়। সাইদুর রহমানের জানান গত দেড় সপ্তাহে  মোটরসাইকেল উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। ৭ জানয়ারী উপজেলার সোনাহদ গ্রামের আবু রায়হান ভূলুর ছেলে উৎসব আহম্মেদ জীবন, কুদরত মুন্সির ছেলে মেহেদী হাসান মহন ও পাঁন্নাপাড়া গ্রামের আবদার আলীর ছেলে তোহা আলী একটি মোটরসাইকেল নিয়ে আড়ানী বাজারে আসছিল। তারা আড়ানী পৌরসভার সীমান্তের পিলারের কাছে পৌছলে ৫/৬ জনের একটি ছিনতাইকারীর দল তাদের পথরোধ করে। এ সময় উভয়ের মধ্যে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে তাদের আত্ম চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। তবে ছিনতাইকারীর মারপিট ও ছুরির আঘাতে তারা আহত হয়। ৯ জানুয়ারী দুপুরে উপজেলার জিরো পয়েন্ট এলাকায় বাঘা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী কেয়া আক্তারের কান ছিঁড়ে সোনার রিং ছিনিয়ে নিয়ে পালায় দুর্বৃত্তরা। তার বাড়ি বাঘা পৌরসভার দক্ষিনমিলিক বাঘা গ্রামে। এছাড়া এক মাসের ব্যবধানে লালপুরে দিনের বেলায় তিনটি মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। ১৯ ডিসেম্বর বাগাতিপাড়া উপজেলার জামনগর পকেটখালী এলাকায় ও বৃহস্পতিবার জুগিপাড়ায় দিনের বেলায় মোটরসাইকেল ছিনতাই হয়েছে বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য গত বৃহস্পতিবার নাটোরের লালপুর উপজেলার বাদলিবাড়ি এলাকায় দিনের বেলায় মহরকয়া ডিগ্রী কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক মোশারফ হোসেনকে (৪২) দূর্বৃত্তরা গুলি করে হত্যা করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়েছে। এই ঘটনার ২৪ ঘন্টা অতিবাহিত হলেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এই নিয়ে লালপুর এলাকায় দফায় দফায় মানববন্ধনসহ বিক্ষোভ হয়।
মহরকয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ড. ইসমত হোসেন বলেন, মোশারফ হোসেন তিন ভাই দুই বোন। এরমধ্যে তৃতীয় নম্বর ছিল মোশারফ। তার স্ত্রী আয়সা বেগম স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক। তার সাত বছরের অর্ক নামের ছেলে ও ১৪ মাসের অবান্তি নামের মেয়ে রয়েছে। মোশারফ স্থানীয় তেঁথুলিয়া উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি, রাজশাহী কলেজ থেকে এইচএসসি ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স মাষ্টার্স শেষ করে ২০০৪ সালে আমার কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি নিয়মিত ক্লাস করতেন। প্রতিদিনের মতো বৃহম্পতিবার ক্লাস শেষ করে নিজ বাড়ি বাঘা উপজেলার পীরগাছা গ্রামে ফেরার পথে দূর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে হত্যা করেছে। আমি তার হত্যাকারীদের শাস্তি চাই। তিনি বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানের অনেক দুর থেকে শিক্ষকরা আসেন। এই ঘটনায় দিনের বেলায় চলাচলে নিশ্চিয়তা হারিয়ে ফেললাম। তিনঘুটি এলাকার মুক্তার হোসেন বলেন, দুপুরের দিকে এই রাস্তা দিয়ে লোকজনের চলাচল কম। এই সুযোগে দূর্বৃত্তরা কাজে লাগিয়েছে।
বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ  (ওসি) আলী মাহমুদ বলেন, মোশারফের নিহতের ঘটনাস্থল আমার এলাকায় না। কিন্তু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে ছিনতাইয়ের বিষয়ে কেউ থানায় কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।
লালপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু ওবায়েদ বলেন, নিহত মোশারফের লাশ ময়না তদন্ত শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এই ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। হত্যাকারীদের চিহ্নত করার চেষ্টা চলছে।
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি বলেন, শিক্ষক হত্যার ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসনকে তাৎক্ষনিক নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রশাসন কাজ করছে। আশা করছি দ্রুতই হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে পারবে পুলিশ।#
রুমি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ