গোদাগাড়ীতে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

আপডেট: নভেম্বর ৪, ২০১৬, ১২:০২ পূর্বাহ্ণ

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি



রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে স্কুল শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত বুধবার রাতে স্থানীয় জনতা অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
গ্রেফতারকৃত শিক্ষক শহিদুল ইসলাম গোদাগাড়ী পৌর এলাকার জাহানাবাদ গ্রামের মৃত দাউদ আলীর ছেলে ও উপজেলার দিগরাম উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক শিক্ষক। তার দুইটি মেয়ে রয়েছে। ওই ছাত্রী একই বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে উপজেলার জৈটাবটতলা গ্রামে এক স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে স্কুল শিক্ষক শহিদুল ইসলাম (৩৮)। ছাত্রীর চিৎকারে আশেপাশের মানুষ এসে শহিদুলকে হাতেনাতে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে শিক্ষক শহিদুল ইসলামকে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
ওই ছাত্রী জানায়, তার মা বাবা তাফসির মাহ্ফিল শুনতে বাইরে যায়। এসময় তার স্কুলের শিক্ষক শহিদুল ইসলাম বাড়িতে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে।
এ বিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিপজুর আলম মুন্সি বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। আলামত পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে। এদিকে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় দিগরাম উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীরা জড়িত শিক্ষক শহিদুলের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেন।