গোপনে দ্বিতীয় বিয়ে করায় নাটোরে সাবেক ইউপি সদস্যের কন্যার আত্মহত্যা স্ত্রী আশঙ্কাজনক অবস্থায় রামেক হাসপাতালে ভর্তি

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২২, ৯:০৭ অপরাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোরের হালসায় পারিবারিক কলহের জেরে সাবেক এক ইউপি সদস্যের স্ত্রী-কন্যা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টায় কন্যা মুন্নির (২০) মৃত্যু হয়েছে। এসময় আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্ত্রী জাহেদা বেগম (৩৩) কে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। শনিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে নাটোর সদর উপজেলার হালসা দাখিল মাদ্রাসাপাড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে। নিহত মুন্নি ওই গ্রামের সাবেক হালসা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য খোরশেদ মন্ডলের মেয়ে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান মন্ডল জানায়, খোরশেদ আলম বেশ কিছু দিন আগে জেলার নলডাঙ্গা এলাকায় গোপনে দ্বিতীয় বিবাহ করে শহরে ভারা বাড়িতে থাকে। খোরশেদ মন্ডলের বিয়ের ওই বিষয়টি জানা-জানি হলে তার স্ত্রী জাহেদা বেগম এবং কন্যা মুন্নি খাতুন এর সাথে শনিবারের দিন ঝগড়া হয়। তারই এক পর্যায়ে অভিমানে মেয়ে ঘড়ের তীরের সাথে গলায় ওড়না ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার করে। একই কায়দায় জাহেদা বেগম গলায় ওড়না ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এসময় বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে আনে।

এ ব্যাপারে খোরশেদ আলমের সেল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। নাটোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনসুর রহমান জানান, এলাকাবাসীর তথ্যের ভিত্তিতে সদর হাসপাতালে গিয়ে জানা যায় মুন্নি বাড়িতেই গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যায়। তার মা জাহেদা বেগম কে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক আমরা ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করেছি। তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে বিষয়টি আসলে কী ঘটেছে।