গোমস্তাপুরে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন, সকল প্রকার দোকান বন্ধ

আপডেট: আগস্ট ২, ২০২১, ৯:২০ অপরাহ্ণ

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি:


মহামারী করোনা রোধে তৃতীয় ধাপের লকডাউনের ১১তম দিনে গোমস্তাপুরে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। সোমবার সকাল থেকে উপজেলা সদরসহ রহনপুর পৌর এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে উপজেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল লক্ষ্য করা গেছে। লকডাউনে উপজেলার বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল। রাস্তাঘাটে যানবাহন ও জনসাধারণের চলাচল ছিল সীমিত আকারে। তবে গোমস্তাপুর উপজেলার প্রাণকেন্দ্র রহনপুরে স্মরণকালের লকডাউন পালিত হয়েছে। ঐতিহ্যবাহী সাপ্তাহিক রহনপুর হাট বন্ধ ছিল। ওষুধের দোকান ব্যতিত রহনপুরে সমস্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এমনকি মুদিদোকান, কাচাবাজার, মাছ,মাংসের আড়ত একেবারেই বন্ধ ছিল।
এদিকে লকডাউনের বিধি নিষেধ অমান্য করায় সোমবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ৭জনকে ৩ হাজার ৮শ টাকা অর্থদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার নজির।
রহনপুর পৌর এলাকার রহমতপাড়ার বাসিন্দা নুর মোহাম্মদ বলেন,সকালে রহনপুর বাজারে নিত্যপণ্য বাজার করতে গিয়ে তা করতে পারেন নি। তিনি হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরে আসেন। তারমত অনেকে বাজার থেকে ফেরত এসেছেন।
রহনপুর শিল্প ও বনিক সমিতির সভাপতি সৈয়দ ফারুক হোসন বলেন, মূলতঃ সোমবারের হাট বন্ধ করতেই প্রশাসনের অনুরোধে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ওষুধের দোকান ব্যতিত নিত্য প্রয়োজনীয দোকান বন্দ রাখা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান বলেন, লকডাউন বাস্তবায়নের অংশ হিসেবেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মানুষ যাতে সচেতন হয় সে দিকেই নজর দিতে হবে সকলকে।
অন্যদিকে একটি সূত্রে জানায়, লকডাউনের দশম দিন রোববার ঘটলো বিপত্তি। সোমবার রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ন কবীর গোমস্তাপুরে আসবেন তাই উপজেলা প্রশাসন রোববার এলাকায় মাইকিং করে জানিয়ে দেয়, রোববার বিকেল ৩ টা থেকে সোমবার সারাদিন ঔষুধ দোকান ব্যতীত সবকিছুই বন্ধ থাকবে।