গোমস্তাপুরে খাস পুকুরপাড়ে বসতি স্থাপনের চেষ্টা ।। পুলিশের লাঠিচার্জে চার নারী আহত

আপডেট: জুলাই ১৫, ২০১৭, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

গোমস্তাপুর প্রতিনিধি


চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে বিরোধপূর্ণ একটি খাস পুকুরপাড়ে বসতি স্থাপনের চেষ্টাকালে পুলিশের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশের লাঠিচার্জে চার জন নারী আহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের নিসকালিপুর মৌজার ধোবাপুকুর পাড়ে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন- চাড়ালডাঙ্গা এলাকার সাইফুদ্দিনের স্ত্রী সাহিদা (৪৫), মুকুলের স্ত্রী মাহমুদা (২৫), নজরুলের স্ত্রী শওকত আরা (৪০) ও আজিজুর রহমানের স্ত্রী নাজিরা (৪৫)। তারা রহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত নারীরা অভিযোগ করে বলেন, তারা অস্থায়ীভাবে ওই খাস পুকুরপাড়ে বসতি স্থাপনের চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এর একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করলে তারা আহত হয়।
জানতে চাইলে গোমস্তাপুর থানার ওসি শেখ শাহীন কামাল জানান, বিরোধপূর্ণ ওই পুকুরপাড়ে বসতি স্থাপনের খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আসিফ আহমেদের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এসময় স্থানীয় প্রশাসন তাদের উচ্ছেদ করতে গেলে শতশত নারী, শিশু-কিশোর বাধা দেয়। লাঠিচার্জ বা রাবার বুলেট নিক্ষেপের কোন ঘটনা ঘটে নি বলে দাবি করেন তিনি।
এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আসিফ আহমদ জানান, সরকারি খাস পুকুরপাড়ে অবৈধভাবে বসতি স্থাপনের সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে স্থানীয়দের মারমুখী আচরন লক্ষ্য করি। পরে পুলিশের সহায়তায় অস্থায়ীভাবে দখলকরা খাস পুকুরপাড় দখলমুক্ত করা হয়।
প্রসঙ্গত, ওই পুকুর নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত আদিবাসী ও স্থানীয়দের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে গত শনিবার রাতে পুকুরের লীজ গ্রহিতা আবদুল হান্নান বহিরাগতদের সহায়তায় আদিবাসীদের উপর হামলা চালায় বলে আদিবাসীদের অভিযোগ। এ ঘটনার প্রতিবাদে গত রোববার আদিবাসিরা উপজেলা সদর রহনপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে। তাদের দাবি- ওই পুকুরপাড়ে তাদের শ্বাশান, কবরস্থান ও মন্দির রয়েছে। সেখানে লীজ গ্রহিতা আবদুল হান্নান স্থানীয়দের সহায়তায় তা দখলের চেষ্টা করছে।