গোমস্তাপুরে মাছের দাম না পেয়ে নদীতে ভাসিয়ে দিচ্ছেন জেলেরা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৭, ১:১২ পূর্বাহ্ণ

গোমস্তাপুর প্রতিনিধি


চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে মাছের আশানুরূপ দাম না পাওয়ায় জেলেরা উপজেলার মহানন্দা ও পূনর্ভবা নদীতে মৃত মাছ ভাসিয়ে দিচ্ছেন। ফলে নদী তীরবর্তী এলাকায় তীব্র গন্ধের সৃষ্টি হয়েছে। যা জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরূপ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, অধিক মুনাফা লাভের আশায় এক প্রকার অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের চোখে ধূলো দিয়ে উপজেলার পূনর্ভবা ও মহানন্দা নদীর মকরমপুর থেকে রামদাস বিল পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকায় ২০টি অবৈধ সুঁতি জাল বসিয়ে গত কয়েকদিন যাবত মাছ ধরছেন। এদিকে গত শনিবার থেকে প্রচণ্ড তাপমাত্রার কারণে বিপুল পরিমাণ মাছ এ সব সুতি জালে ধরা পড়ছে। ধরা পড়া মাছ আড়তে বিক্রি করতে না পেরে আবারও মাছগুলো নদীতে ফেলে দিচ্ছেন জেলেরা। ফলে নদীর আশেপাশে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে।
এদিকে উপজেলার প্রাণকেন্দ্র রহনপুর বাজারের মাছের আড়ৎগুলোর সামনে গিয়ে দেখা গেছে, সেখানে খুচরা ক্রেতার ভিড় থাকলেও পাইকারি মাছ ব্যবসায়ীদের তেমন ভিড় নেই। সিলভার, কাতল, রুই, বিগহেড মাছ বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ১৫-৪০ টাকা দরে।
আমিনুল মাছ আড়তের সহকারী মোফাজ্জল হোসেন জানান, গত কয়েক দিন আবহাওয়া খারাপ থাকায় আড়তে মাছ আমদানি কম হলেও গত শুক্রবার রাত থেকে বিপুল পরিমাণ মাছ বাজারে আসছে। মাছ ব্যবসায়ী মন্টু জানান, বন্যার পানি কমতে থাকায় উপজেলার রামদাস বিল, চড়–ইল বিল, মকরমপুর ঘাটে প্রচুর মাছ ধরা পড়ছে।
এ বিষয়ে গোমস্তাপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, অধিক মুনাফা লাভের আশার জেলেরা যেন নদীতে সুতি জাল বসিয়ে মাছ ধরতে না পারে সেজন্য নদী এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। নদীর পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে রোববার সকাল থেকে উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও উপজেলার প্রশাসন যৌথভাবে কাজ শুরু করেছে।