গোয়ালে দুর্বৃত্তের আগুন, তিন গরু দগ্ধ

আপডেট: মার্চ ১৫, ২০১৭, ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে ভূমিহীন এক নারীর গোয়াল ঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এর ফলে গোয়াল ঘরের তিনটি গরু দগ্ধ হয়েছে। গরু উদ্ধার করতে গিয়ে এলাকার এক ব্যক্তিও আহত হয়েছেন। গত সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে নগরীর চারখুটা মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগি মনোয়ারা বেগম (৫০) জানান, স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি চাতালে কাজ শুরু করেন। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে তিনি এলাকার বদর আলী নামে এক ব্যক্তির চাতালে কাজ করেন। এই চাতালের এক কোণেই তিনি বাড়ি করে বসবাস করেন। এ বাড়িতে তিনি একাই থাকেন।
সেখানে তিনি গরুও পালন করেন। সোমবার দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা তার গোয়াল ঘরে আগুন দেয়। এতে গোয়াল ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় একটি গাভি, একটি বাছুর ও একটি এঁড়ে গরু দগ্ধ হয়। জ্বলন্ত গোয়াল ঘর থেকে গরুগুলো বের করতে গিয়ে বখতিয়ার আলী (৪৫) নামে এলাকার এক ব্যক্তিও আহত হন।
বখতিয়ার আলী বলেন, রাত ১২টার দিকে গোয়াল ঘর জ্বলতে দেখে তিনি ছুটে আসেন। মনোয়ারা বেগম তখনও পাশের একটি ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। তাকে তিনি ডেকে ওঠান। এরপর জ্বলন্ত গোয়াল ঘর থেকে গরু বের করতে গিয়ে তিনিও আগুনে আহত হন।
মনোয়ারা বেগমের মেয়ে বুলবুলি খাতুন (৩০) বলেন, নগরীর রায়পাড়া এলাকায় তার বিয়ে হয়েছে। কয়েকমাস থেকে প্রতিবেশি আলমগীর হোসেন ও তার ছেলে আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে তার দ্বন্দ্ব চলছে। সোমবার বিকেলেও তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় আনোয়ার হোসেন তার পরিবারের ক্ষতি করার হুমকি দিয়েছিলেন। তিনি ধারণা করছেন, তারাই তার মায়ের গরুর গোয়ালে আগুন দিয়েছেন। এ কারণে তিনি তাদের নামে থানায় লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন।
অভিযোগের তদন্ত করছেন নগরীর রাজপাড়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাজিবুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে থানায় কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগও হয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। তদন্ত শেষে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ