গ্রামের মানুষের দোরগোড়ায় তথ্য প্রযুক্তির সেবা পৌঁছে দিতেই ডিজিটালাইজেশন : লিটন

আপডেট: ডিসেম্বর ১৩, ২০১৬, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যানির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, গ্রামের মানুষের দোরগোড়ায় তথ্য প্রযুক্তির সেবা পৌঁছে দিতেই ডিজিটালাইজেশন। এই ডিজিটালাইজেশনের লক্ষ্যেই এই প্রশিক্ষণ। এ প্রশিক্ষণ নিয়ে সবাই যেন গ্রাম পর্যায়ের মানুষকে তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা দিতে পারেন।
রাজশাহী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার তৃণমূলের তথ্য জানালা প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বাংলাদেশে ডিজিটালাইজেশনের বাস্তবায়ন শুরু হয়েছিল গ্রাম পর্যায় থেকে। এ লক্ষ্যে দেশে সাড়ে চার হাজারের বেশি ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিটিতে একটি করে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়। বর্তমানে এসব সেন্টারে কর্মরত প্রায় ১০ হাজার উদ্যোক্তা প্রতিনিয়ত গ্রামের মানুষকে বিভিন্ন ধরণের তথ্য ও সেবা দিয়ে যাচ্ছে।
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, সরকার তৃণমূলের তথ্যজানালা কর্মসূচির আওতায় এসব উদ্যোক্তাদের প্রতিবেদন ও ফিচার লেখার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। যাতে তারা কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরতে পারেন। একইসঙ্গে তারা গ্রাম এলাকার মুক্তিযুদ্ধের ঘটনা লিখে ইউনিয়ন পরিষদের ওয়েবসাইটসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশের মাধ্যমে মানুষকে জানাতে পারেন।
রাজশাহীর জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর, কমিউনিকেশন স্পেশালিস্ট এলআইসিটি প্রকল্পের আইসিটি বিভাগের অজিত কুমার সরকার প্রমুখ। রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে।