গ্রাহকের ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ভুয়া এনজিও’র মালিকসহ গ্রেফতার ৬

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২২, ১১:০৬ অপরাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :


প্রতারণা করে গ্রাহকের ৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে শিবগঞ্জে ভুয়া এনজিও’র মালিকসহ ৬ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের র‌্যাব-৫ ক্যাম্পের সদস্যরা।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সাবেক লাভাঙ্গা গ্রামের এনজিও’র মূলহোতা মো. আব্দুস সামাদ (৪৫), রশিকনগর গ্রামের মো. জামাল উদ্দিন (ম্যানেজার) (২৩), নয়ালাভাঙ্গার মো. মাহফুজুর রহমান (হিসাব রক্ষক) (২২), হরিনগরের মো. জুয়েল আলী (মাঠকর্মী) (২৪), নয়ালাভাঙ্গা শিরোটোলার মো. গোলাম রাসেল (মাঠকর্মী) (২৫) ও রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার ললিতনগরের মো. আলমগীর হোসেন (মাঠকর্মী) (৩৫) ।

গত বুধবার বিকাল ৩ টার দিকে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের কমলাকান্তপুরে তাদের অফিসে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। বুধবার (২৩ নভেম্বর) রাত ১১ টার দিকে প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের কমলাকান্তপুর গ্রামে প্রগ্রেসিভ স্টার সোসাইটি সংস্থায় সংস্থায় নামে একটি ভুয়া এনজিও প্রতিষ্ঠা করে এবং এনজিওতে বিভিন্ন গ্রাহককে অধিক মুনাফার লোভ দেখিয়ে গরীব অসহায় লোকদের টাকা বিনিয়োগ এবং টাকা ঋণ নেয়ার জন্য উস্কানি প্রদান করে। এতে অসহায় লোকজন তাদের উস্কানিতে টাকা বিনিয়োগ করে এবং তাদের এনজিও হতে ফাঁকা চেক জমার মাধ্যমে ঋণ উত্তোলন করলে এনজিও কর্মীরা ব্লাংক চেক ব্লাকমেইল এর মাধ্যমে অতিরিক্ত টাকা এবং গ্রাহকের জমাকৃত ৬ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। এনিয়ে বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে ব্যাপক লেখালেখি হলে র‌্যাব তা আমলে নিয়ে ছায়া তদন্ত শুরু করে। এরই প্রেক্ষিতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের কমলাকান্তপুর গ্রামের আটককৃত আব্দুস সামাদের দ্বিতল ভবনের দোতলা নীচতলার অফিস কক্ষে অভিযান চালিয়ে ওই এনজিও’র মালিক, মূলহোতা, এরিয়া ম্যানেজার, হিসাবরক্ষক, মাঠ কর্মীসহ ৬ প্রতারককে আটক করে। এসময় ভুয়া ৫ হাজার পাশবই, বিভিন্ন ব্যাংকের ৩টি ব্লাংক চেক ও ২৪টি ভূয়া সীল জব্দ করা হয়। এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও র‌্যাব জানায়।