গ্লাসগো ব্যর্থ হলে সবকিছু ব্যর্থ হবে: বরিস জনসন

আপডেট: নভেম্বর ১, ২০২১, ২:০৫ অপরাহ্ণ

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্ব নেতাদের কার্বন নিঃসরণ কমানোর প্রতিশ্রæতির আহŸান জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। স্কটিশ শহর গøাসগোতে জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে উপস্থিত নেতাদের সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেছেন, তা না হলে বৈশ্বিক উষ্ণতা নিরসনের যাবতীয় প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবে।
রোমে জি২০ নেতাদের বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, গøাসগো যদি ব্যর্থ হয়, তাহলে সবকিছু ব্যর্থ হবে। এই বৈঠকে নেতারা বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমিত রাখার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে সম্মত হয়েছেন।

এদিকে, রবিবার সকালে স্কটল্যান্ডের সবচেয়ে বড় শহর গøাসগোতে দুই সপ্তাহের সম্মেলন উদ্বোধন করেন কপ২৬ প্রেসিডেন্ট অলোক শর্মা। সেখানে তিনি বলেন, ওই লক্ষ্যমাত্রা বাঁচিয়ে রাখার ‘সবশেষ, সবচেয়ে ভালো প্রত্যাশা হলো’ আলোচনা।
২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তিতে দেশগুলো বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি প্রাক শিল্প যুগের চেয়ে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে

এবং সম্ভব হলে ১.৫ ডিগ্রিতে সীমিত রাখতে সম্মত হয়। সেই প্রতিশ্রæতির প্রতিধ্বনি করেন বরিস জনসন।
প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সরকার ২০৫০ সাল নাগাদ যুক্তরাজ্যের কার্বন নিঃসরণের পরিমাণ শুন্যে নামিয়ে আনার প্রতিশ্রতি দিয়েছে। আরও বেশ কিছু দেশ কার্বন নিঃসরণ কমানোর পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। তবে সেসবও পর্যাপ্ত নয় বলে জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

বরিস জনসন বলেন, ‘আমরা যদি কপ২৬ কে ব্যর্থ হওয়া থেকে ঠেকাতে চাই তাহলে সেগুলো অবশ্যই বদলাতে হবে।’ তা না হলে প্যারিস চুক্তি কেবল একটি কাগজের টুকরায় পরিণত হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
তথ্যসূত্র বাংলাট্রিবিউন