ঘণ্টায় ৭৭০০০ মাইল বেগে ছুটছে ভয়ঙ্কর এক গ্রহাণু

আপডেট: মার্চ ১২, ২০২১, ১০:০০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


মাঝে মাঝেই সেই এক ত্রাসের কথা শোনা যায়। মহাজাগতিক ত্রাস। যার ভয়ে কুঁকড়ে থাকে পৃথিবী নামের গ্রহটি। অন্ধকার মহাকাশ থেকে প্রচ- গতিতে ছুটে আসা কোনও মহাজাগতিক বস্তু, গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। এর পর কী হবে? থাকবে তো গ্রহটির অস্তিত্ব? বেঁচে থাকবে মানুষ?
এত কথার সাতকাহন কারণ, বৃহস্পতিবারই নাসা জানিয়েছে, এ সৌর-সংসারের বৃহত্তম গ্রহাণুটি ২১ মার্চ নাগাদ পৃথিবীর কান ঘেঁষে চলে যাবে। গ্রহাণুটির নাম ২০০১ এফও৩২, যেটির ব্যাস প্রায় ৩০০০ ফুট। ২০ বছর আগে এটির আবিষ্কার হয়েছিল।
না, এ লেখার শুরুতে যে আশঙ্কার কথা বলা হয়েছে, আগামী ২১ তারিখে তার কোনও পূর্বাভাস নেই। কেননা ‘সেন্টার ফর নিয়ার আর্থ অবজেক্ট স্টাডিজে’র প্রধান পল খোডাস পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, এই গ্রহাণুটির কোনও ভাবেই পৃথিবীর গায়ে এসে পড়ার আশঙ্কা নেই। জানা গিয়েছে, এটি পৃথিবীর ২০ লক্ষ কিলোমিটার দূর দিয়ে চলে যাবে। তবে এ-ও ঠিক, ‘২০০১ এফও৩২’ নামক গ্রহাণুটিকে বিজ্ঞানীরাই খুব ‘ঝামেলাবাজ’ এক গ্রহাণু বলেও অ্যাখ্যা দিয়েছেন।
জানা গিয়েছে, গ্রহাণুটি প্রতি ঘণ্টায় ৭৭০০০ মাইল বেগে ছুটে যাবে। ভয়ঙ্কর এক বেগ। পল খোডাস জানিয়েছেন, দক্ষিণ আকাশ দিয়ে যখন এটি ছুটে যাবে তখন এটি সব চেয়ে উজ্জ্বল থাকবে।
তথ্যনসূত্র: ২৪ঘণ্টাডটকম

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ