ঘরের মাঠ বলেই এগিয়ে বাংলাদেশ

আপডেট: মার্চ ৭, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



হকিতে বাংলাদেশ আর ওমানের শক্তির পার্থক্য নেই তেমন। র‌্যাংকিংয়ে ওমানের (৩১) পরই বাংলাদেশের (৩২) অবস্থান। শক্তি-সামর্থ্যে গলাগলি ধরে চলতে থাকা দুই দেশের মাঠের লড়াইয়ের ফলাফলও তেমন।  কখোনো বাংলাদেশ জেতে, কখনো ওমান। আর র‌্যাংকিংয়ে একটু এগিয়ে থাকা ওমানের জয়ের পাল্লাটাও একটু ভারি। সর্বশেষ ৬ সাক্ষাতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিই জিতেছে বেশি, ৩ বার। বাংলাদেশ জিতেছে ২ ম্যাচ, একটি ড্র।
র‌্যাংকিং আর অতীতের ফলাফল আজ মঙ্গলবারের ম্যাচে ওমানকে একটু হলেও এগিয়ে রাখছে। আর ম্যাচে বাংলাদেশ ফেবারিট যদি হয় সেটা ঘরের মাঠ বলে। পরিচিত মাঠ আর মানুষের সামনে বাংলাদেশই এগিয়ে থাকবে মানসিকভাবে। তবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি বাংলাদেশকে মোকাবিলা করতে নামবে সর্বশেষ ২ ম্যাচের জয়ের স্মৃতি নিয়ে।
সর্বশেষ ৬ ম্যাচের প্রথমটি হয়েছিল ঢাকায় ২০০৬ সালে। এশিয়ান গেমস বাছাইয়ের ওই ম্যাচে অবশ্য কেউ জেতেনি, গোলশূন্য ছিল এক দশক আগের ম্যাচটি। ২০১০ সালে চিনের গুয়াংঝুতে অনুষ্ঠিত এশিয়ার গেমসের গোলময় লড়াইয়ে শেষ হাসি ছিল ওমানের। তারা ম্যাচটি জিতেছি ৬-৫ গোলে।
২০১২ সালে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এএইচএফ কাপে ওমানকে ৬-৩ গোলে হারায় বাংলাদেশ। একই বছর মালয়েশিয়ায় এশিয়া কাপে বাংলাদেশকে ৪-২ গোলে হারিয়েছিল ওমান। দুই দলের শেষ সাক্ষাতটি হয়েছিল ২০১৫ সালে সিঙ্গাপুরে। হকি ওয়ার্ল্ড লিগের ওই ম্যাচে ওমান শ্যুটআউটে জিতেছে ২-০ গোলে। নির্ধারিত সময়ের খেলা ছিল ৩-৩। বাংলাদেশের প্রধান কোচ জার্মানীর অলিভার কার্টজ ওই ম্যাচে ছিলেন ওমানের কোচ।