ঘর ভাঙলো অভিনেত্রী নন্দিতা দাসের

আপডেট: জানুয়ারি ৪, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বলিউডের বছরটা শুরু হলো বিচ্ছেদের খবরে। জানা গেছে, অভিনেত্রী নন্দিতা দাসের ঘর ভেঙেছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী সুবোধ মাসকারার কাছ থেকে আলাদা হয়ে গেছেন নন্দিতা।
ভারতীয় গণমাধ্যমের বরাতে জানা গেল, সাত বছরের সংসার নন্দিতা-সুবোধের। নানা কারণে তাদের মধ্যে চলছিল দ্বন্দ্ব-মতবিরোধ। অবশেষে আলোচনা করেই সুবোধের সঙ্গে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন নন্দিতা। ৪৬ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর বিহান নামে এক পুত্রসন্তানও রয়েছে। সে তার বাবা ও মায়ের সঙ্গে বছর কাটাবে ভাগাভাগি করে।
প্রথম বিয়ে বিচ্ছেদের পর ২০১০ সালের জানুয়ারিতে নন্দিতা দাস দ্বিতীয়বারের মতো বিয়ে করেন মুম্বাইয়ের শিল্পপতি সুবোধকে। দুজন ভালোবেসেই বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু মাত্র সাত বছরের মাথায় ভেঙে গেল ভালোবাসার ঘর। ১৯৮৯ সালে প্রকাশ ঝা পরিচালিত ‘পরিণতি’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় নন্দিতা দাসের। এরপর ‘১৯৪৭ আর্থ’, ‘ফায়ার’, ‘হাজার চৌরাশি কি মা’ প্রভৃতি ছবির মাধ্যমে নিজেকে ভিন্নধর্মী চলচ্চিত্রের মেধাবী অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি। এখন পাকিস্তানি লেখক সাদাত হাসান মান্টোর জীবন অবলম্বনে একটি ছবি পরিচালনা করছেন নন্দিতা দাস। এতে মান্টোর ভূমিকায় দেখা যাবে নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকীকে। নন্দিতা পরিচালিত প্রথম ছবি ‘ফিরাক’ (২০০২) ছিলো গুজরাটে দাঙ্গাকে ঘিরে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ