চকবাজারে আগুনের ঘটনায় ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার

আপডেট: আগস্ট ১৫, ২০২২, ৯:০৯ অপরাহ্ণ

লাশ উদ্ধার করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা

সোনার দেশ ডেস্ক:


রাজধানীর চকবাজারে প্লাস্টিকের গোডাউনে লাগা আগুন নেভানোর পর ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার পর আগুন নিয়ন্ত্রণ এলে ঘটনাস্থল সার্চ করার সময় মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মিডিয়া শাখার কর্মকর্তা শাহজাহান সিকদার এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। মৃতদেহগুলো উদ্ধার করে মিটফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমরা ভবনের দুই তলা, তিন তলা ও চার তলায় অনুসন্ধান করে ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছি। এখনো ভবনের বিভিন্ন রুমে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে।’

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর চকবাজারে একটি হোটেলের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চারতলা ভবনে আগুন লাগে। পরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো ভবনে। ভবনের হোটেল থেকে আগুনের সূত্রপাত হলেও ভবনের চার তলার প্লাস্টিক কারখানায় ছড়িয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট প্রায় আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

বরগুনা: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এমপি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর সামনেই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বেধড়ক পিটিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে পুলিশ তাদের পেটায়।
এসময় পুলিশের একটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

জানা যায়, দুপুর ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কমপ্লেক্সে ফুল দিতে যান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়ার পর দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভায় যোগ দিতে গেলে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা চালান। এসময় নতুন কমিটির সভাপতির সমর্থক এবং পদবঞ্চিত নেতাকর্মীদের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এসময় পুলিশ লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার সময় বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনায় কয়েকটি মোটরসাইকেল ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম তারেক রহমান বলেন, ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। শিল্পকলা একাডেমি এলাকায় অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল কবির রেজা জানান, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শিল্পকলায় প্রবেশের সময় শিল্পকলার ছাদ থেকে আমাদের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। তাদের ইট-পাটকেল নিক্ষেপের কারণে পুলিশের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং পুলিশ ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠিচার্জ শুরু করে।

অবশ্য সভাপতি পদবঞ্চিত জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সবুজ মোল্লার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তিনি ব্যস্ততা দেখিয়ে এড়িয়ে যান।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা শহরের সিরাজ উদ্দীন টাউন হল মিলানায়তনে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ২৪ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেন। এতে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়। এরপর থেকেই সদ্য ঘোষিত এ কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বরগুনা শহরে পদবঞ্চিতরা প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ