চট্টগ্রামে সমতায় ফেরার আশা স্মিথের

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৭, ১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চাপ এমনিতেই ছিল, হারের পর সেটা বেড়ে গেছে আরও। মিরপুর টেস্ট হেরে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার, সুযোগ আছে কেবল সমতায় ফেরার। যেটা করতে হলে চট্টগ্রাম টেস্টে জেতা ছাড়া কোনও পথ খোলা নেই সফরকারীদের। মিরপুর টেস্টে রীতিমত সংগ্রাম করা অস্ট্রেলিয়ার জন্য তাই আরও কঠিন সময় অপেক্ষা করছে সামনে। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০ রানে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে আসা অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথও মেনে নিয়েছেন, ‘প্রচুর চাপ’ তৈরি হয়ে গেছে তাদের। যদিও চাপ জয় করে চট্টগ্রামে সিরিজ সমতায় ফেরানোর আশা তার মনে।
অতীত সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নেমেছিল অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের বিপক্ষে আগের চার টেস্টের তিনটিতেই যেখানে তাদের জয় ইনিংস ব্যবধানে, সেখানে এবারের সফরেও প্রত্যাশা ছিল জয়ের। কিন্তু ২০০৬ সালে শেষবার মুখোমুখি হওয়া বাংলাদেশ গত ১১ বছরে যে অনেক বদলে গেছে, সেটা জানা থাকলেও খুব ভালো করে বুঝল স্টিভেন স্মিথরা প্রথম টেস্ট হেরে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে হেরে যাওয়ায় সিরিজ জয়ের স্বপ্ন শেষ অস্ট্রেলিয়ার। এখন নিজেদের বাঁচাতেই লড়তে হবে তাদের। যাতে বাড়তি চাপ তৈরি হয়ে গেল বলে মনে করছেন অধিনায়ক স্মিথ, ‘আমরা দুই ম্যাচের সিরিজ ১-০তে পিছিয়ে গেলাম, যাতে আমাদের ওপর প্রচুর চাপ তৈরি হয়ে গেছে। তবে আশা করছি চট্টগ্রামে সমতা ফেরাতে পারব সিরিজে। দলের জন্য আরও একটি বড় চ্যালেঞ্জ।’
হারের পর স্বভাবতই হতাশ স্মিথ, ‘অবশ্যই প্রত্যাশা করা ফল না পেয়ে আমরা হতাশ। যদিও এখন আমাদের নজর দিতে হবে সামনের দিকে। আশা করছি যে ভুলগুলো হয়েছে, সেগুলো বের করে আমরা ফিরতে পারব।’
সিরিজে সমতায় ফেরানোর লক্ষ্যে বদল আসছে অস্ট্রেলিয়ার একাদশে। একটা জায়গায় তো অবশ্যই; জশ হ্যাজেলউড চোটে ছিটকে যাওয়ায় তার খেলা হচ্ছে না চট্টগ্রামে। তার জায়গায় ইতিমধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্তর্ভুক্ত করেছে স্পিনার স্টিভ ও’কিফকে। ওদিকে অনেকদিন পর দলে সুযোগ পেয়ে দুই ইনিংসেই ব্যর্থ হয়েছেন উসমান খাজা। সব মিলিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টে একাদশ নিয়ে স্মিথ বলেছেন, ‘আমাদের বেশ কয়েকটি বিকল্প আছে। দ্বিতীয় টেস্টের পরিকল্পনা অনুযায়ী বিকল্প কী করতে হবে, সেটা ঠিক করব। যদিও নির্বাচকদের ওপরই নির্ভর করছে সব কিছু।’-বাংলা ট্রিবিউন