চলে গেলেন পতœীতলার ভাষা সৈনিক খাদেমুল ইসলাম

আপডেট: December 21, 2016, 12:09 am

পতœীতলা  প্রতিনিধি



নওগাঁর পতœীতলার শিক্ষানুরাগী, ভাষা সৈনিক ও প্রবীণ শিক্ষাবিদ নূর আলম খাদেমুল ইসলাম আর নেই। তিনি উপজেলা সদর নজিপুর পুরানা বাজারে বাসিন্দা ও প্রায় দেড় মাস যাবত ঢাকার ইউরো বাংলা হার্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।
জানা যায়, ভাষা সৈনিক মরহুম নূরে আলম খাদেমুল ইসলাম ১৯৩০ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি জেলার পতœীতলা উপজেলার গগনপুর গ্রামে মামার বাড়িতে জন্ম গ্রহণ করেন। পিতার নাম মৃত  খয়ের উদ্দিন আহম্মদ ও পিত্রালয় জেলার ধামইরহাট উপজেলার লক্ষণপাড়া গ্রামে। তিনি ১৯৪৬ সালে নজিপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিক, ১৯৪৮ সালে রংপুর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইএ পাশ করেন। তখন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের সহপাঠী ছিলেন। তিনি ১৯৫০ সালে রাজশাহী কলেজ  থেকে বিএ এবং ১৯৫২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এমএ পাশ করেন। তিনি তখন ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় ভাবে অংশ গ্রহণ করায় গ্রেফতার হন ও ২৮ দিন কারাভোগ করেন। তখন শহিদ বরকত তাঁর সহপাঠী ছিলেন। তিনি ১৯৫৩ সালের দিকে প্রথমে নজিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন। এরপর নওগাঁর বিএমসি কলেজ প্রতিষ্ঠা হলে কিছুদিন অধ্যপনা করেন সেখানে। তখন যোগাযোগ ব্যবস্থা খারাপ ও অন্যান্য সমস্যায় আবার নজিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ফিরে আসেন। দেশ স্বাধীনের পর জেলার ধামইরহাট সদর উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন ও ১৯৯০ সালে আবসর গ্রহণ করেন। তিনি রাষ্ট্রীয় ভাবে কোন সম্মানা না পেলেও স্থানীয়ভাবে তাঁকে গুণিজন সংবর্ধনা  দেয়া হয়  ও বগুড়ার স্বকাল সাহিত্য পরিষদের পক্ষ থেকে একুশে পদক লাভ করেন।
এ প্রবীণ শিক্ষানুরাগী নজিপুর মহিলা কলেজ, নজিপুর বহুভাষী ষাঁটলিপি কলেজ ও নজিপুর আলহেরা ইসলামী আদর্শ একাডেমি স্কুল প্রতিষ্ঠার জন্য জমি প্রদান করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ