চাঁদের মাটিতে মিলল জলের সন্ধান! চিনের বিজ্ঞানীদের দাবি ঘিরে শোরগোল

আপডেট: জুন ২০, ২০২২, ১:২১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


‘বাড়ির কাছে আরশি নগর’ পৃথিবীর নিকটতম প্রতিবেশী চাঁদ। এত কাছে, তবু একে ঘিরে রহস্যের শেষ নেই আজও। এবার চাঁদের মাটিতে জলের চিহ্ন খুঁজে পাওয়ার দাবি চিনের বিজ্ঞানীদের। স্বাভাবিক ভাবেই উত্তেজিত বিজ্ঞানী মহল। পৃথিবীর একমাত্র উপগ্রহের ‘ওশিয়ান অফ স্টর্মস’ তথা ঝঞ্ঝাসাগর অঞ্চলের জমাট বাঁধা লাভার মধ্যেই মিলেছে জলের সন্ধান।

এই সপ্তাহে ‘নেচার কমিউনিকেশনস’ নামের এক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে এই সংক্রান্ত এক গবেষণাপত্র। যা থেকে এই নতুন আবিষ্কার সম্পর্কে জানা যাচ্ছে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, চন্দ্রপৃষ্ঠে চিনের পাঠানো মানুষহীন যান জমাট বাঁধা লাভা খুঁজে পেয়েছে। আর তা থেকেই মিলেছে হাইড্রক্সিল। এর মধ্যেই রয়েছে জল।

কী এই হাইড্রক্সিল? যার মধ্যে একটি হাইড্রোজেন পরমাণু ও একটি অক্সিজেন পরমাণুর পাশাপাশি রয়েছে দু’টি হাইড্রোজেন ও একটি অক্সিজেন পরমাণুর জলীয় অণু। কোথা থেকে এল এই জল? মনে করা হয়, সূর্য থেকে চাঁদের মাটিকে আছড়ে পড়া তড়িদাহত কণা আছড়ে পড়লে যে রাসায়ণিক ক্রিয়া-বিক্রিয়া হয়, তার ফলেই উদ্ভব হয় হাইড্রক্সিলের।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে চাঁদের মাটি সঙ্গে নিয়ে ফিরেছিল চিনের মহাকাশযান চ্যাং ই-৫। আমেরিকা ও তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের পর তৃতীয় দেশ হিসেবে চাঁদমামার দেশ থেকে পাথর আনতে সফল হয়েছিল কমিউনিস্ট দেশটি। তখনই বিজ্ঞানীরা

নিয়েছিলেন, যে মূল্যবান মাটি ও পাথরের নমুনা নিয়ে ফিরেছে যানটি, সেগুলির মদতে চাঁদের উৎপত্তি নিয়ে অনেক অজানা তথ্য প্রকাশ্যে আসবে। এর ফলে ভবিষ্যতে আরও জটিল চন্দ্রাভিজানের জন্য জমি তৈরি হবে বলেও ধারণা বিশেষজ্ঞদের। সেই অনুমান মিলে গেল। সংগ্রহ করা নমুনা থেকেই বড় আবিষ্কারের হদিশ মিলল।

মনে করা হচ্ছে আগামী দিনে চিন আরও মহাকাশযান চাঁদে পাঠাবে। শেষ পর্যন্ত চাঁদের জলের উপস্থিতি সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারলেই সৌরজগতের গঠন এমনকী পৃথিবীর উৎপত্তি সম্পর্কেও নতুন তথ্য মিলতে পারে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ