চাঁপাইনবাবগঞ্জে হরিমোহন বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বাধায় ইইডি গেট নির্মাণ কাজ বন্ধ

আপডেট: এপ্রিল ২০, ২০২৪, ৮:৪৮ অপরাহ্ণ


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:


চাঁপাইনবাবগঞ্জে হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বাধায় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের (ইইডি) গেট নির্মাণকাজ আটকে গেছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের চিঠি পাওয়ার পর নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয় শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগ। বিষয়টি নিয়ে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসনে আলোচনা হচ্ছে। ফলে ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে গেট নির্মাণ প্রকল্পটি বাস্তবায়নে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জানা গেছে, গত ৮ এপ্রিল গেট নির্মাণকাজ বন্ধ করতে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলীকে চিঠি দেয় হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. বাইরুল ইসলাম। একই চিঠি জেলা প্রশাসকের কাছে দিয়েছেন তিনি। চিঠিতে বলা হয়েছে, হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের জায়গায় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের স্থায়ী গেট নির্মাণ করা হচ্ছে কিন্তু এই জায়গাটি স্কুলের স্থায়ী সম্পত্তি। সুতরাং হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের জায়গায় স্থায়ী গেট নির্মাণ বন্ধ করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো।

যতটুকু জায়গা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অফিসের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে সেইটুকু জায়গার ভিতরে সকল কার্যক্রম করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো। চিঠি পাওয়ার পর সরেজমিন পরিদর্শনে করেছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম। তবে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, এই কার্যালয় কারো ব্যক্তিগত নয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা প্রকৌশল দুটি প্রতিষ্ঠানই চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষের সম্পদ। শিক্ষা বিস্তারে যেমন বিদ্যালয়ের প্রয়োজন তেমনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের প্রয়োজন। দুটি প্রতিষ্ঠান আলাদা করে দেখার সুযোগ নেই। ইইডির ভবন বা গেট কোথায় হবে সেটি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন ঠিক করবে। শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তারা এখানে স্থায়ী নয়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জানা যায়, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রশাসনের সম্মতিতে হরিমোহন স্কুলের জমিতে নির্মাণ করা হয় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের আধুনিক ভবন। ২০২১ সালে ওই ভবন নির্মাণ করা হয়। এর আগে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের ভবনে চলতো ইইডির কার্যক্রম। নতুন ভবনের উত্তর পাশে একটি টিনের গেট ব্যবহার করতো শিক্ষা প্রকৌশলের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। পুরোনো সেই গেটের কাছে নতুন গেট নির্মাণ কাজ শুরু করে। বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষের নজরে আসার পর নির্মাণকাজ বন্ধের জন্য চিঠি দেয়।

ইইডির চাঁপাইনবাবগঞ্জ কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জিল্লুর রহমান জানান, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের উত্তরপাশে পুরোনো একটি টিনের গেট ছিল-যেটা আমরা ব্যবহার করতাম। কিছুদিন আগে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের চীফ ইঞ্জিনিয়ার এসেছিলেন। একটি গেটের জন্য অর্থ বরাদ্দ দেন। পুরানো গেটের জায়গায় নতুন করে গেট নির্মাণকাজ শুরু করা হয়েছে। নির্মাণ ব্যয় ধরা হয় ২০ লক্ষ টাকা। তবে প্রধান শিক্ষক নিষেধ করার পর নির্মাণকাজ বন্ধ করা হয়। বিষয়টা স্থানীয় সংসদ-সদস্য ও জেলা প্রশাসককে জানানো হয়। তারা যে সীদ্ধান্ত নিবে তাই হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে যোগাযোগ করা হলে হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. বাইরুল ইসলাম বলেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরে অফিস নির্মাণের জন্য হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ২২ শতাংশ জমি শিক্ষামন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বরাদ্দ দেয়া হয়। সেখানে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের ভবন নির্মাণ করা হয়ছে। কিন্তু বরাদ্দের বাইরে গিয়ে স্কুলের জমিতে গেট নির্মাণ করছিল শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর। সেটি বন্ধ করতে চিঠি দেয়া হয়েছে। ওই চিঠির অনুলিপি জেলা প্রশাসককেও দেয়া হয়েছে। ওই জায়গাটি স্কুলের অডিটোরিয়ামের জন্য নির্ধারিত। সেখানে ইইডির গেট নির্মাণ হলে পুরো জায়গা বেদখল হয়ে যাবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম জানান, বিষয়টি সমাধান হয়েছে। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরকে গেট নির্মাণকাজ বন্ধ করতে বলা হয়েছে। এটা নিয়ে আর কোন ঝামেলা হওয়ার কথা নয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ