চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভাকে তিলোত্তমা নগরীতে পরিণত করা হবে : জাহাঙ্গীর কবির নানক

আপডেট: নভেম্বর ২৬, ২০২১, ৯:৪০ অপরাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:


উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানালেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এ্যাড জাহাঙ্গীর কবির নানক।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে পৌরসভা পার্কে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি নৌকার পক্ষে পূর্ণসমর্থন জানিয়ে ভোটারের উদ্দেশে বলেন-উত্তরের সমৃদ্ধ এ জনপদটি আজ আবার পিছিয়ে পড়েছে। তাই নৌকার প্রার্থী মোখলেসুর রহমানকে ভোট দিয়ে বিজয় নিশ্চিত করুন এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সামিল হোন। অবহেলিত এ জনপদের আবার উন্নয়ন হবে। দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। বর্তমান সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নে আশ্বস্ত জনগণ। নৌকায় ভোট দিয়ে এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এবার নৌকার বিজয় হবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি। এ এলাকার মানুষের চিকিৎসা সেবা দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৫০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণ করেছেন।

আ.লীগকে বলা হয় ইসলাম বিরোধী। যারা ইসলামের কথা বলে তাদের মুখে শোভা পাই না। তারা রং পাল্টালেও তাদের চেহারা আসল ফুটে ওঠে। আ.লীগ সরকার সারাদেশের ন্যায় এ জেলায় ৬টি মডেল মসজিদ নির্মাণের কাজ করছে। বিএনপি এ এলাকার উন্নয়ন করতে পারেনি। তারা শুধু মিথ্যাচার করে মানুষের কাছে ভোট নিয়েছে। এদেরকে মানুষ আজ চিনতে পেরেছে। এখানে বিএনপির এমপি, সদর উপজেলায় বিএনপি’র চেয়ারম্যান ও পৌরসভায় মেয়র বিরোধী দলের। এ অঞ্চলের মানুষ আজ এর খেসারত দিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, সহজ সরল মানুষদের বিভ্রান্ত করা যাবে না। তিনি আরো বলেন সাবধান থাকবেন দলের মুনাফেকদের থেকে। তাদের অন্তরে এক বাইরে আরেক,এ মুনাফেকদের জায়গা নাই। তাদের দলে স্থান আর থাকবে না। তারা শেখ হাসিনার বিশ^াসঘাতকতাকারী, যারা শেখ হাসিনা মা সমতুল্য তাকে সম্মান দেখায় না, তাদের দল করার অধিকার নাই।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে এ পৌরসভায় মেয়র নির্বাচিত করা হলে এ পৌরসভাকে তিলোত্তমা নগরীতে পরিণত করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের যে উন্নয়ন করেছেন, তার প্রমাণ আজ নারীদের উপস্থিতি বলে দিচ্ছে। শেখ হাসিনার বার্তা পৌছে দেয়ার জন্যই এ পৌরসভায় আসা। আপনারা নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করলে মমতাময়ী শেখ হাসিনা এ পৌরসভার উন্নয়ন সাধন করবেন। পথসভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্যে কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, বিএনপির মত ভোট কারচুপি করতে চাই না। হারুন পাপিয়া প্রার্থী দেয় নাই। কিন্তু গোপন সমর্থন দিয়েছেন কোন প্রার্থীকে। প্রতিটি ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট ভিক্ষা চাইতে হবে। নৌকা উন্নয়নের প্রতীক, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, একসময় বলা হত নৌকায় ভোট দিলে মসজিদে আযানের ধ্বনি শোনা যাবে না, উলুধ্বনি শোনা যাবে ও দেশ ভারত হয়ে যাবে। তাদের এসব কথা শোভা পায় না।

আ,লীগ সরকার ৮ হাজার ৭ কোটি ২২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৬০ টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করছেন, যা চলমান রয়েছে। আ.লীগের বাইরে যারা ক্ষমতায় ছিল তাদের সময় মসজিদ নির্মাণ হয়নি। ইসলামের জন্য কে কাজ করে, আপনারাই এর সাক্ষি। পৌর আ.লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে ও পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ রোকনউজ্জামানের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে পথসভায় বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী মহানগর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি ডা. গোলাম রাব্বানী, যুগ্ম সম্পাদক মোঃ শরিফুল আলম, স্বেচ্ছাসেবকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইফতেখারুল ইসলাম সুজন, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক ফায়জার রহমান কনক প্রমুখ।