চাটমোহরে গমের ভাল ফলন, ভাল দামে কৃষকের মুখে স্বস্তির হাসি

আপডেট: এপ্রিল ১৯, ২০২৪, ৫:১৩ অপরাহ্ণ

গম কেটে ঘোড়ার গাড়িতে বাড়ি নিচ্ছেন কৃষক। বৃহস্পতিবার চাটমোহরের বরদানগর মাঠ থেকে তোলা।

শাহীন রহমান, পাবনা :


গমের ফলন ও দাম ভাল পাওয়ায় হাসি ফুটেছে পাবনার চাটমোহরের চাষীদের মুখে। ইতোমধ্যেই নির্বিঘ্নে গম কেটে ঘরে তুলেছেন তারা। এ বছর গম চাষীরা বিঘা প্রতি লাভ করেছেন প্রায় দশ হাজার টাকা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ বছর চাটমোহর উপজেলায় গম চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩ হাজার ৫৫০ হেক্টর জমিতে। আবাদ হয়েছে ৩ হাজার ৭১০ হেক্টর জমিতে। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৪০ হেক্টর জমিতে গম চাষ বেশি হয়েছে। হেক্টর প্রতি গড় ফলন পাওয়া গেছে প্রায় ৩ দশমিক ৮৪ মেট্রিক টন। সে হিসেবে উপজেলায় গমের উৎপাদন হয়েছে ১৪ হাজার ২৪৬ মেট্রিকটন।

উপজেলার রামনগর গ্রামের গমচাষী বকুল হোসেন জানান, চাষ, বীজ, সার, সেচ, আগাছা পরিষ্কার, কীটনাশক ও কর্তন শ্রমিক খরচসহ গমচাষে বিঘাপ্রতি খরচ হয়েছে প্রায় সাত হাজার টাকা। বিঘাপ্রতি ফলন পাওয়া গেছে দশ থেকে এগারো মণ। বর্তমান বাজারে প্রতি মণ গম বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৬০০ টাকায়। সে হিসেবে বিঘা প্রতি কৃষক দশ হাজার টাকার কিছু কম বেশি লাভ পাচ্ছেন।

গমচাষী রেজাউল করিম জানান, এক বিঘা জমিতে গম আবাদে এবার তার খরচ হয়েছিল আট হাজার টাকা। সাড়ে ১১ মণ গম পেয়েছেন তিনি। যার বাজার মূল্য প্রায় ১৯ হাজার টাকা।
তিনি আরো জানান, এবার গম চাষে কৃষক বিঘাপ্রতি প্রায় দশ হাজার টাকা লাভ পেয়েছেন। তবে, যারা বর্গা চাষ করেন বা অন্যের জমি ইজারা নিয়ে গম চাষ করেছিলেন তারা এতটা লাভ করতে পারেননি।

চাটমোহর উপজেল কৃষি কর্মকর্তা এ এ মাসুম বিল্লাহ জানান, চাটমোহরে সাধারণত বারি-৩০, বারি-৩২, বারি-৩৩, ডব্লিউএমআরআই-১, ডব্লিউএমআরআই-২ ও ডব্লিউএমআরআই-৩ জাতের গম চাষ বেশি হয়। এ বছর আবহাওয়া গম চাষের অনুকূলে ছিল। চাষীরা ভাল ফলনের সাথে দামও ভাল পাচ্ছেন।

 

Exit mobile version