চারু ও কারুকলা বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগে সমান সুযোগ দেয়ার দাবিতে জয়পুরহাটে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট: July 29, 2020, 2:11 pm

জয়পুরহাট প্রতিনিধি :


২০২১-২০২২ সাল থেকে দেশের নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ সমসমানের মোট ১৩ হাজার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চারু ও কারুকলা বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন, সেখানে ওই বিষয়টিতে ১ বছরের কোর্স সম্পন্নকারীদেরও সমান সুযোগ দেয়ার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (২৯ জুলাই) বেলা ১১টায় জয়পুরহাট জেলা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বগুড়া চারু ও কারুকলা ইন্সটিটিউট এন্ড প্রোফেশনাল একাডেমীর পরিচালক আব্দুল মান্নান। তিনি জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ২০১৮ সালে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য যে জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ঘোষণা করেন সেখানে বলা হয়, ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণি ও সমমানের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চারু ও কারুকলা বিষয়ে ১ জন করে সহকারি শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। সংশ্লিষ্ট পদে শিক্ষকের যোগ্যতা হিসেবে চারু ও কারুকলায় স্নাতক ও বয়সসীমা ৩৫ হবে বলেও ওই নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়। এ ব্যাপারে এ বছর ১৯ ফ্রেব্রয়ারি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চারু ও কারুকলা (Fine Arts & craft) বিষয়ে শিক্ষকদের তথ্য চেয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়, যার স্বারক নং ৩৭.০২.০০০০.১১৩.১৬.০০১.২০.৮। তিনি বলেন, বর্তমানে ৫টি বিশ^বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ১০০টি করে আসন সংখ্যা নির্ধারণ করা হয়েছে। সে হিসেবে ১৩ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সমপরিমাণ শিক্ষক নিয়োগ দিতে হলে আগামী প্রায় ৩০বছর সময়ের প্রয়োজন হবে। ২০১২ সালে সরকার নিম্ন মাধ্যমিক থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত চারু ও কারুকলা বিষয়টি বাধ্যতামূলক বিষয় হিসেবে পাঠ্যক্রমের অন্তর্ভূক্ত করলেও অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিষয়টি পড়ানোর মত শিক্ষক নিয়োগ দেয়া সম্ভব হয়নি। এদিকে ২০১৬ সালে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড স্নাতক ও সমমানের পাশ করা শিক্ষার্থীদের জন্য চারু ও কারুকলায় ১ বছর মেয়াদী অ্যাডভান্স সার্টিফিকেট কোর্স প্রবর্তন করে ও ২০১৭ সালে অনুরূপ ৪০ টির অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনুমোদন প্রদান করে। এ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে চারু ও কারুকলা কোর্সে অধ্যয়ন করে শতশত শিক্ষার্থী সরকারি নিয়ন্ত্রণাধীনে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সার্টিফিকেট অর্জন করেছেন। চারু ও কারুকলা বিষয়ে শিক্ষক সংকট ও নিয়োগ জটিলতা উত্তরণে এসব স্বীকৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে উক্ত কোর্সে পাস করা শিক্ষার্থীদের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে শিক্ষক পদে নিয়োগের দাবী জানান বগুড়া চারু ও কারুকলা ইন্সটিটিউট এন্ড প্রোফেশনাল একাডেমীর পরিচালক আব্দুল মান্নান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ