চার দিনের টেস্ট নিয়ে যা বললেন টেন্ডুলকার

আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০২০, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর পর বেশিরভাগ ম্যাচেই ফল আসছে। অনেক ম্যাচ তো তিন-চার দিনেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। তাতে টেস্ট ক্রিকেটের উত্তেজনা বেড়েছে। সেখানে আরও রসদ যোগ করতে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি পাঁচ দিনের এই সংস্করণ চার দিনে নামিয়ে আনার চিন্তা-ভাবনা করছে। যদিও তাদের চার দিনের টেস্ট আয়োজনের পরিকল্পনায় সম্মতি নেই শচীন টেন্ডুলকারের।
ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফো’র খবর, ২০২৩ থেকে ২০৩১ সালের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রে চার দিনের টেস্ট আয়োজনের পরিকল্পনা করছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি। তাদের পরিকল্পনা অনেকেই সমর্থন করেছেন। তবে টেন্ডুলকার অন্য দলে। ভারতীয় ব্যাটিং জিনিয়াসের মতে, টেস্ট ক্রিকেটের সংস্করণে কোনও সংস্কার দরকার নেই এবং বহুকাল ধরে যেভাবে খেলে আসা হচ্ছে, সেভাবেই চালিয়ে যাওয়া উচিত।
ভারতীয় সংবাদ সংস্থা ‘পিটিআই’কে টেন্ডুলকার বলেছেন, ‘একদম পরিষ্কার দৃষ্টিভঙ্গি ও একজন টেস্ট ক্রিকেটপ্রেমী হিসেবে আমার মনে হয় না এটার মেরামতের দরকার আছে। ক্রিকেটের এই সংস্করণ দীর্ঘদিন ধরে এ ভাবেই খেলা হচ্ছে।’ ব্যাটসম্যানদের মানসিকতার পরিবর্তনের আশঙ্কা দেখছেন ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বোচ্চ রানের মালিক, ‘ব্যাটসম্যানরা ভাবতে শুরু করবে, এটা সীমিত ওভারের দীর্ঘ সংস্করণ; কারণ দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চের সময় যখন আপনি ব্যাট করবেন, তখন মনেই হবে আর মাত্র আড়াই দিন বাকি আছে। ভাবনার পরিবর্তনের সঙ্গে খেলাটির গতিপথও পাল্টে দেবে।’
পঞ্চম দিনে পিচ থেকে সবচেয়ে সুবিধা পায় স্পিনাররা। চার দিনের টেস্ট আয়োজন করলে স্পিনাররা সুযোগটা হারিয়ে ফেলবে বলে মনে করেন টেন্ডুলকার। তার বক্তব্য, ‘স্পিনারদের কাছ থেকে পঞ্চম দিন ছিনিয়ে নেওয়া হলো পেসারদের কাছ থেকে প্রথম দিন কেড়ে নেওয়ার মতো। শেষ দিনের শেষ সেশনে বিশ্বের যে কোনও স্পিনার বল করতে ভালোবাসবেন। প্রথম দিন কিংবা প্রথম সেশন থেকে বল টার্ন করে না। পঞ্চম দিনে অসমান উইকেট থেকে টার্ন ও বাউন্স আদায় করে নিতে পারে স্পিনাররা। এটা কিন্তু প্রথম দুই দিনে হবে না।’
টেন্ডুলকারের আগেই চার দিনের টেস্টের বিপক্ষে কথা বলেছেন বিরাট কোহলি। পাঁচ দিনের টেস্টে এখন যে উত্তেজনা আছে, সেটা হারিয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখছেন ভারতীয় অধিনায়ক।