চাল রেখে উধাও ব্যবসায়ীরা

আপডেট: জুন ৩, ২০২২, ৫:০৭ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


রাজধানীতে চালের অন্যতম বড় পাইকারী বাজার মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট। চালের হঠাৎ মূল্যবৃদ্ধির কারণে বাজার তদারকি করতে অভিযানে আসে জাতীয় ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদফতর।

তবে এই খবর বাজারে ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে চালের আড়তের গদি থেকে উধাও হয়ে যান বেশিরভাগ পাইকারী ব্যবসায়ী। শুক্রবার (৩ জুন) সকালে অভিযান শুরু করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদফতর।

এতে নেতৃত্ব দেন উপপরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস। তার সঙ্গে ছিলেন সহকারী পরিচালক (অভিযোগ) মুহাম্মদ হাসানুজ্জামা।
বিকাশ চন্দ্র দাস কৃষি মার্কেটের চালের বাজার পরিদর্শনের সময় সাংবাদিকদের বলেন, ‘বেশিরভাগ দোকানে মূল্যতালিকা নেই, চাল কেনার রশিদ নেই, নেই ভাউচার- এমন অভিযোগে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদফতর।

তিনি অভিযোগ করেন, ‘মিল মালিক ও আড়তে অভিযানের ফলে প্রমাণ মিলেছে পরস্পরের যোগসাজসে চালের দাম বেড়েছে।’
অভিযান শুরুর খবর পেয়েই কৃষি মার্কেটের অনেক চাল ব্যবসায়ী পালিয়ে যান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘তাদের দিয়েই শুরু হবে আগামীতে অভিযান। গুরুতর অভিযোগ পেলে নিয়মিত মামলা ও লাইসেন্স বাতিল করা হবে।’

তবে অভিযোগ রয়েছে চাল ব্যবসায়ীদেরও। তারা বলেন, ‘মিলে দাম বাড়ানোর কারণে তাদের বেশি দামে চাল বিক্রি করতে হচ্ছে।’
বাজারে আসা ক্রেতারা বলছেন, সপ্তাহের ব্যবধানে চালের বাজারে দামের হেরফের রয়েছে। প্রতি কেজিতে ৪ থেকে ৫ টাকা দাম বেড়েছে।

গত দুই সপ্তাহ ধরে হঠাৎ চালের দাম উর্ধ্বমুখী। বিষয়টি সরকারের ঊর্ধ্বতনরাও অবগত রয়েছেন। চালের উৎপাদন মৌসুমে চালের দাম বৃদ্ধির কারণ জানতে গত সপ্তাহেই নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর বেশ কয়েকটি সরকারি সংস্থা একযোগে মাঠে নেমেছে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন