চিরকুট লিখে রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

আপডেট: মে ১১, ২০২২, ৯:১২ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিনিধি:


‘চোরাবালির মতো ডিপ্রেশন, বেড়েই যাচ্ছে, মুক্তির পথ নেই, গ্রাস করে নিচ্ছে জীবন, মেনে নিতে পারছি না।’ বাবার ডায়েরিতে ছোট্ট এই লাইনটে লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন সাদিয়া তাবাসসুম নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার (১০ মে) দুপুরে ময়মনসিংহের গৌরীপুরের নিজ ঘরে ফাঁস লাগিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন।

আত্মহত্যাকারী ওই শিক্ষার্থী ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের বিষমপুর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মাহবুব রশিদ ফারুকের মেয়ে। তিনি রাবির ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের চতুর্থ বর্ষে অধ্যয়নরত ছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে নিজ ঘরে বাঁশের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দেন সাদিয়া। পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (১১ মে) সকালে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গৌরীপুর থানার এসআই মাইনুল রেজা জানান, মাঝে বেশকিছু দিন সাদিয়ার লেখাপড়া বন্ধ ছিল। যে কারণে তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। এসব কারণে সাদিয়া আত্মহত্যা করতে পারেন ধারণা করা হচ্ছে। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রাবির ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সোহেল কবির বলেন, সাদিয়ার মৃত্যুর খবরটি আমরা জেনেছি। এটা খুব হতাশাজনক। আমাদের একজন শিক্ষার্থী এভাবে অকালে ঝরে যাবে, আমরা ভাবতেও পারেনি। তবে কী কারণে আত্মহত্যা করেছে; তা বলতে পারছি না। তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার বিষয়ে সচেতন হওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।