চেয়ারম্যানের সামনে প্রধান শিক্ষকের হাত ভাঙলো বখাটে

আপডেট: জুন ১১, ২০২২, ১১:৪৫ অপরাহ্ণ

পাবনা প্রতিনিধি:


ইউপি চেয়ারম্যানের সামনেই প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে তার হাত ভেঙ্গে দিয়েছে তারেক মাহমুদ মাহিম (২৮) নামে এক বখাটে।
মারধরের শিকার ইউসুফ আলী (৫৫) উপজেলার ভেড়ামারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। অভিযুক্ত মাহিম চক্রপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদ সরকারের ছেলে। তারা উভয়ই একই গ্রামের বাসিন্দা।

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় শনিবার সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মাহিমের মারধরে লিটন খান নামে আরও একজন আহত হয়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মাহিমের সাথে তার স্ত্রীর দীর্ঘদিন ঝামেলা চলছে। দুইদিন আগে মাহিমের শ্বাশুরী মাহিমের বাড়িতে আসলে সে তার স্ত্রী ও শ্বাশুরী উভয় কে মারধর করে।

মাহিমের স্ত্রী ইউসুফের আত্মীয় হওয়ায় শনিবার সকালে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হেদায়েতুল হক, লিটন খান, মাহিমের স্ত্রীর পরিবারের লোকজন ও বেশ কয়েকজন গ্রাম প্রধান নিয়ে মাহিমের বাড়িতে যায় শ্বাশুরীকে মারধরের বিষয়ে শুনতে। এ সময় মাহিমের স্ত্রী তার সাথে সংসার করবে না বলে জানায় চেয়ারম্যান সহ অন্যান্যদের এবং মাহিমের পরিবারও তাকে রাখবে না বলে জানায়।

ফলে চেয়ারম্যান মাহিমের স্ত্রীকে কিছুদিন বাবার বাড়িতে রাখার কথা বললে মাহিমের স্ত্রী রাজি হয়। এরপর মাহিমের স্ত্রী তার নেশার কথা বলে দেয়। এতে মাহিম ক্ষিপ্ত হয়ে ইউসুফ আলীকে মারধর করে হাত ভেঙ্গে দেয়। এ সময় তাকে থামাতে গিয়ে মারধরের শিকার হন লিটন খান। পরে চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে মাহিম থামে ও পালিয়ে যায়। ইউপি চেয়ারম্যান পুলিশকে খবর দেয়। পরে আহত ইউসুফ আলীকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

অভিযোগের বিষয়ে মাহিমের পিতা আব্দুল মজিদ বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষক ইউসুফ আলী সহ কয়েকজন বসে বিষয়টি মীমাংসা করছিল। কিন্তু ইউসুফ আলীর বাড়াবাড়িতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ছেলে আঘাত করে।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত চিকিৎসক শরিফুল ইসলাম বলেন, আহত শিক্ষককে হাসপাতালে ভর্তি করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাতের এক্সরে করতে বলা হয়েছে। রিপোর্ট দেখে পরবর্তী চিকিৎসা দেওয়া হবে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হেদায়েতুল হক বলেন, এমন ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে ব্যবস্থা নিতে।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী একটি সাধারণ ডাযেরী করেছন। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ