চেয়ারম্যান পদে অধ্যক্ষ বাদশা ও মোহাম্মদ আলীর মনোনয়ন উত্তোলন সদস্য ২২, সংরক্ষিত পদে ৮ জন

আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০১৬, ১১:৪২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



রাজশাহী জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দুইজন মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন। এদের মধ্যে নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা ও ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী সরকার মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেছেন। গতকাল সোমবার অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা ও রোববার মোহাম্মদ আলী সরকার মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেন। এছাড়া সাধারণ সদস্য পদে ২২ জন, সংরক্ষিত আসনের সদস্য পদে ৮ জন মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেছেন বলে জানিয়েছেন রাজপাড়া থানা নির্বাচন অফিসার শহিদুল ইসলাম।
এবিষয়ে অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা বলেন, রাজশাহী জেলা পরিষদের নির্বাচন কোন প্রতীকী নির্বাচন না। যদিও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি জেলা পরিষদের প্রশাসকের চেয়ারম্যান পদে একজন প্রার্থী নির্বাচিত করেছেন। তারপরেও এই নির্বাচনে আমার চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন তোলার যোগ্যতা, ভোটারদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা এবং সমর্থন করেছেন। এজন্য আমি চেয়ারম্যান পদে মনোয়নপত্র উত্তোলন করেছি। তিনি বলেন, এরপরও যদি দলের হাই কমান্ড নির্বাচন নিয়ে আমাকে কোন সিদ্ধান্ত দেন তা আমাকে মানতে হবে। কারণ দলের বাইরে গিয়ে কোন সিদ্ধান্ত নিবো না।
এবিষয়ে মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, আমি চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র তুলেছি। এছাড়া আমি কোন মন্ত্রব্য করতে চায় না।
সংশ্লিষ্ট সুত্র জানা যায়, এরআগে জেলা পরিষদের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে সাধারণ সদস্যের ১৫ পদে ৬৫ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্যের ৫ পদে ১৫ জন দলীয় মনোয়নের জন্য জেলা আওয়াম লীগ কার্যালয়ে আবেদন করেছিলেন। চেয়ারম্যান পদে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ প্রার্থী সমর্থন দিলেও সদস্য পদে দেবে না। সদস্য পদে মনোনয়ন দেবে স্থানীয় জেলা আওয়ামী লীগ।
রাজপাড়া থানা নির্বাচন অফিসার জানান, গতকাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ২ জন, সাধারণ সদস্য পদে ২২ জন, সংরক্ষিত পদে ৮ জন মনোয়ন পত্র উত্তোলন করেছেন। এছাড়া নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বের। বাছাই ৩ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১১ ডিসেম্বর। ভোট গ্রহণ হবে ২৮ ডিসেম্বর।
তিনি জানান, রাজশাহীর ১ হাজার ১৭১ জন জনপ্রতিনিধি এ নির্বাচনের ভোটার। এই নির্বাচনের ভোটাররা হলেন ৭২ টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য, ১৪ টি পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর, ৯টি উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান এবং সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর। নির্বাচনে ভোটররা ১ জন চেয়ারম্যান, ৫ জন সংরক্ষিত সদস্য এবং ১৫ জন সাধারণ সদস্য নির্বাচন করবেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ