ছেলে ফিরে আসার অপেক্ষায় পরিবার ।। ৯ মাসেও খোঁজ মেলে নি ইন্ডিপেডেন্ট টিভির নিরাপত্তা কর্মী সোহানের

আপডেট: জুলাই ১৬, ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


নিখোঁজের ৯ মাসেও খোঁজ মেলে নি ই›িডপেডেন্ট টেলিভিশনের নিরাপত্তাকর্মী মেহেদী হাসান সোহানের (১৮)। ২০১৬ সালের ১৯ অক্টোবর ছুটি নিয়ে গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বানিয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। তারপর থেকে আর খোঁজ মেলে নি তার। এই বিষয়ে তার বাবা সাহাদুল ইসলাম রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এদিকে ছেলে নিখোঁজের পর থেকে তার পরিবার ৯ মাস থেকে ছেলে ফিরে আসার অপেক্ষায় দিন গুণছে।
সোহানের বাবা সাহাবুল ইসলাম বলেন, আমার ছেলে প্রায় ১৩ মাস যাবৎ নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে ই›িডপেডেন্ট টেলিভিশনে কর্মরত ছিল। গত ২০১৬ সালের ২৩ অক্টোবর রাজশাহী বিভাগে সেনাবাহিনীতে লোক নিয়োগের দিন ধার্য ছিল। ওইদিন সোহানের সেখানে পরীক্ষার লাইনে দাঁড়ানোর কথা ছিল। এই কারণে ১৯ অক্টোবর অফিস থেকে ছুটি নিয়ে বাড়ি আসার কথা সোহানের। এদিন সন্ধ্যার পর থেকে তার সঙ্গে আর কোন যোগাযোগ করা যায় নি। তিনি আরো জানান, এ দিন থেকে সোহনের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। ছেলের মোবাইল দুই দিন বন্ধ দেখে আমি ২১ অক্টোবর ইন্ডিপেডন্ট টেলিভিশনের অফিসে যাই। অফিসের অন্যান্য নিরাপত্তাকর্মীরা আমাকে জানায় সোহান ১৯ অক্টোবর ছুটি নিয়ে বাড়ি চলে গেছে। তবে সোহান যেহেতু বাড়ি যায় নি, সেহেতু থানায় সাধারণ ডায়েরি করার পরামর্শ দেয় নিরাপত্তা কর্মীরা। এই পরামর্শে আমি তেজগাঁও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি দায়ের করি। যার নম্বর ৯৬৫। কিন্তু ডায়েরি করার প্রায় ৯ মাসেও ছেলের কোন খোঁজ খবর মেলে নি।
সোহানের মা মনোয়ারা বেগম বলেন, আমার ছেলের ইচ্ছা ছিল সেনাবাহিনীতে চাকরি করবে। এ কারণে ছেলে নিয়োগের বিজ্ঞাপণের জন্য অপেক্ষা করছিলো। কিন্তু ছেলে এখন কোথায় আছে কেমন আছে এমনকি বেঁচে আছে, না মারা গেছে কিছুই জানি না।
প্রতিবেশী আসলাম উদ্দিন বলেন, সোহান নিখোঁজের পর থেকে তার বাবা-মাসহ পরিবারে এক শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছে। তারপরও ছেলে ফিরে আসার জন্য পথ চেয়ে বসে আচে পুরো পরিবার।
এ বিষয়ে তেজগাঁও থানার এসআই এসএম তৌহিম মোবাইল ফোনে বলেন, সাধারণ ডাইরির পর থেকে বিভিন্ন থানায় ম্যাসেজ দেয়া হয়েছে। এছাড়া তাকে উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ