ছয় মাস ধরে নিখোঁজ নারী বেঁচে আছেন ঘাস খেয়ে

আপডেট: মে ৭, ২০২১, ৮:২৫ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


সেই সোশ্যাল মিডিয়ার পর্দা! যেখানে চোখ রাখলে কতই না আজব-অদ্ভূত আর অজানা দৃশ্য চোখে পড়ে। যা দেখে নেট জনতারা কখনও মানবিকতার উজ্জ্বল নিদর্শন ভেবে নেই, কখনও চক্ষুচড়ক গাছ হয়ে ওঠে, তো কখনও হেসে লুটোপুটি খায়। তাই তো সময় পেলেই বা কাজের ফাঁকে কিছুক্ষণের জন্য তাঁরা ঘুরে যায় সোশ্যাল মিডিয়া থেকে। মুঠোবন্দি এই স্মার্টফোনই আজ মানুষের কাছে বিনোদনের অন্যতম উপকরণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যা দেয় তাঁদের ক্ষণিক সময়ের জন্য স্বস্তিও। নেটিজেনরাও তাই মুঠোবন্দী ফোনে খুঁজে বেড়ায় সেই সব স্বস্তিদায়ক দৃশ্য।
তেমনই এক কা- এবার ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। দীর্ঘ ছয় মাস ধরে নিখোঁজ থাকা এক নারীর খোঁজে তল্লাশি চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। অবশেষে তাঁর খোঁজ মিললেও চক্ষু জোড়া চড়কগাছ হওয়ার উপক্রম পুলিশের। এখন হয়ত ভাবছেন, খুঁজে পাওয়ার খবরটি তো আনন্দের, তাহলে অবাক হওয়ার কি আছে! চলুন জেনে নেওয়া যাক প্রকৃত ঘটনা।
উপত্যকায় ঘুরতে কার না ভাল লাগে। কিন্তু সেখানে ঘিরতে গিয়ে যদি কেউ হারিয়ে যায়, তাহলে সেই ঘোরার জায়গাটাই কাল হয়ে দাঁড়ায়। এমনই কা- ঘটল যুক্তরাষ্ট্রের উটাহ শহরে। সেখানে এক উপত্যকায় স্বপরিবারে ঘুরতে গিয়েছিলেন এক মহিলা। কিন্তু আর ফিরে আসা হয়নি। সেই গহীন উপত্যকায় তিনি হারিয়ে যান। পরিবারের তরফে অনুমান করা হচ্ছিল তিনি আর বেঁচে নেই। কারণ সেই এলাকায় নেই কোনও গাছপালা। তবে দীর্ঘ ৬ মাস পরে অবশেষে জানা গেল তিনি বেঁচে আছেন।
নারীটি যে উপত্যকায় হারিয়েছিলেন সেখানে দিনের বেলা প্রখর রোদ আর রাতে প্রচন্ড ঠা-া। তিনি সেই উপত্যকার স্প্যানিশ ফার্ক ক্যানিয়ন অঞ্চলে হারিয়েছিলেন গত বছরের ২৫ নভেম্বরে। শেষে পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে তাঁর গাড়িটি উদ্ধার করে। পুলিশের তরফে অনুমান করা হয়েছিল, নারীটি নিজের ইচ্ছায় সেই এলাকায় হারিয়েছিলেন। কিন্তু আদতে তা নয়। গত রবিবার সেই মহিলাকে পাওয়া গিয়েছে।
এমন বন্ধ্যা উপত্যকায় সে কীভাবে এতদিন কাঁটাল, তা এখন হয়ত আপনার মনে উদয় হবে। জানিয়ে দি, ওই উপত্যকায় ঘাস ছাড়া আর কিছুই ছিল না। তাই ওই নারী শুধু ঘাস এবং দূরের একটি নদী থেকে জল খেয়ে নিজের সঙ্গে নিয়ে আসা একটি তাঁবুতে থাকতেন। যার ফলে নারীটির ওজনও ব্যাপকভাবে হ্রাস পায়।
পুলিশ নিখোঁজ নারীর তল্লাশিতে ড্রোন উড়িয়েছিল ওই এলাকায়। ঠিক তখনই প্রথমে মহিলার গাড়িটির এবং পরে ওই নারীর খোঁজ পাওয়া যায়। এখন মহিলাটির শারীরিক সুস্থতা পরীক্ষা করার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তথ্যসূত্র: kolkata24x7