জঙ্গি বাশার ও ছোট মিজানের ডিএনএ পরিবারের সঙ্গে মেলানো হবে: পুলিশ

আপডেট: জুলাই ২৩, ২০১৭, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চাঁপাইনবাবগঞ্জের অপারেশন ঈগল হান্টেই গুলশান হামলার দুই পরিকল্পনাকারী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন,  ‘আমরা আরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য নিহতদের ডিএনএ সংগ্রহ করেছি। তাদের পরিবারের সঙ্গে তা মিলিয়ে দেখা হবে। এরপর তাদের পরিচয়ের বিষয়ে আরও নিশ্চিত করতে পারব।’  শনিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে ডিএমপি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এই তথ্য জানান।
মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘গত এপ্রিল মাসে চাপাইনবাগঞ্জে অপারেশন ঈগল হান্টে ৪ জন জঙ্গি নিহত হয়। চার জনের মধ্যে একজনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিল তখনই। সে ওই এলাকার ছিলেন। তার নাম আবু। বাকি তিনজনের পরিচয় এতদিন অজ্ঞাতই ছিল। সম্প্রতি জঙ্গি মাহফুজ গ্রেফতার হওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদকালে সে জানা যায়, সেখানে জঙ্গি বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট বাশার ও ছোট মিজান নিহত হয়েছে। জঙ্গি বাশারের ছবি আমাদের কাছে আগেই ছিল। পরবর্তী সময়ে আমরা তার ছবি ওই লাশের সঙ্গে মিলিয়ে দেখেছি। দাড়ি ছাড়া ও দাড়িসহ মিলিয়ে দেখেছি, নিহতের চেহারার সঙ্গে জঙ্গি বাশারের চেহারার অনেক মিল রয়েছে। একইসঙ্গে জঙ্গি মাহফুজের বক্তব্যের সঙ্গে মিলিয়ে বুঝতে পেরেছি, সেখানে জঙ্গি বাশারুজ্জামান চকলেট ও ছোট মিজান নিহত হয়েছে।’
গত ২৬ ও ২৭ এপ্রিল চাপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ এলাকার মোবারকপুর ইউনিয়নের ত্রিমোহনী শিবনগর গ্রামে অভিযান চালায় সিটিটিসি ইউনিট। দুই দিনের অভিযান শেষে সিটিটিসির পক্ষ থেকে জানানো হয়, অভিযানে চার জঙ্গি নিজেরাই আত্মঘাতী হয়ে মারা গেছে। ওই বাড়িতে আবু নামে এক জঙ্গি থাকতো। অভিযানের সময় সোয়াট সদস্যরা ওই বাসা থেকে এক নারী ও এক শিশুকে উদ্ধার করেন।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন