জঙ্গি সংশ্লিষ্ট সন্দেহে রাবির তিন শিক্ষার্থীকে পুলিশে সোপর্দ

আপডেট: এপ্রিল ২১, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার সন্দেহে ও গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীকে পুলিশে সোপর্দ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।
আটককৃতরা হলেন, মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী জুবায়ের হোসেন, প্রাণরাসায়ণ ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের মকসুদুল হক এবং ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের আল তৌফিক। তারা সবাই প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জুবায়েরকে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ও অপর দুজনের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
ছাত্রলীগ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ফেসবুকে আইএস ও জিহাদ সম্পর্কে বিভিন্ন লেখা শেয়ার দেওয়ায় জুবায়ের হোসেনকে কয়েকদিন ধরে পর্যবেক্ষণ করছিলেন কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী। গতকাল দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা শুরু করে রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়াসহ নেতাকর্মীরা।
জুবায়ের বলেন, তিনি এসএসসি পরীক্ষার পর থেকে ধর্মীয় বিষয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। এরপর অনলাইনে বিভিন্ন জিহাদি বিষয়ে পড়ালেখা করে এসবের প্রতি আকৃষ্ট হন। একপর্যায়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কট্টর ইসলামপন্থি বিভিন্নজনের সঙ্গে তার যোগাযোগ গড়ে ওঠে। একটি অপরিচিত গোষ্ঠি তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে এবং ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপে ইনভাইট করছে বলে জানান তিনি। এসবের সঙ্গে যুক্ত হবেন কি না সেটা নিয়ে দ্বিদ্বা-দ্বন্দ্বে আছেন বলে জানায় জুবায়ের।
জুবায়ের ফোন নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের সময় তার ফোনের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মকসুদ নামের শিক্ষার্থী মেসেজ দেয়। জুবায়েরের কাছ থেকে মকসুদের নাম্বার নিয়ে তাকে বিনোদপুরের ছাত্রাবাস থেকে ডেকে নিয়ে আসেন ছাত্রলীগ নেতারা।
মকসুদ জানায়, সে জুবায়েরের সঙ্গে কিছুদিন এক ছাত্রাবাসে ছিল। পরে তাকেও আটক করে জ্ঞিাসাবাদ করা হয়। কিছুক্ষণ পর পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তৌফিক নামে এক শিক্ষার্থীর গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় তাকে ডেকে জ্ঞিাসাবাদ করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে তাদের তিনজনকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘জুবায়ের নামের ছাত্রটি ফেসবুকে আইএস সম্পর্কে বিভিন্ন লেখা শেয়ার দেয়। তার ফোনে আইএস-এর যুদ্ধের ভিডিও ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যাঙ্গ করে তৈরি করা গান পাওয়া গেছে। অন্য দুজনকেও সন্দেহজনক মনে হওয়ায় পুলিশে দেয়া হয়েছে।’
মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবির বলেন, তিনজন ছাত্রকে পুলিশে সোপর্দ করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। তাদের কাছে জঙ্গিবাদ বিষয়ে কিছু পেয়েছে তারা। আমরা থানায় নিয়ে জ্ঞিাসাবাদ করবো। তথ্য প্রমাণ পেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।