জঙ্গি সালাউদ্দিন পশ্চিমবঙ্গে

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নিষিদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠী জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) শীর্ষস্থানীয় নেতা সালাউদ্দিন সালেহীন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গত কয়েক মাসে ধরে লুকিয়ে আছেন। ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (এনআইএ) বরাত দিয়ে শনিবার নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এ তথ্য জানিয়েছে।
২০০৫ সালে সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সালাউদ্দিন সালেহীন। ২০১৪ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ময়মনসিংহের ত্রিশালে প্রিজনভ্যানে হামলা চালিয়ে এক পুলিশ সদস্যকে হত্যা করে জেএমবি সদস্যরা ছিনিয়ে সালাউদ্দিনসহ তিন জঙ্গিকে। এর পরই সালাউদ্দিন ভারতে পালিয়ে যায়।
এনআইএ সূত্র জানিয়েছে, ভারতের খাগড়াগড় ও বুদ্ধগয়াতে বিস্ফোরণের সঙ্গে জড়িত ছিল সালাউদ্দিন। তিন বার সে পুলিশের চোখে ধুলা দিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে।
সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘বাংলাভাষী শ্রমিকদের মধ্যে জেএমবির নেটওয়ার্ক ছড়িয়ে দিতে সালাউদ্দিন তামিলনাড়ু, কর্ণাটক ও কেরালায় গিয়েছিল। আমরা ২০১৮ সালের আগস্টে বেঙ্গালুরু থেকে খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলার প্রধান সন্দেহভাজন জাহিদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছিলাম। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আমরা দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলোতে সালাউদ্দিনের কর্মকাণ্ড বিষয়ে জানতে পারি।’
এনআইএ’র দাবি, সালাউদ্দিন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী অঞ্চলের কুচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, মালদহ, মুর্শিদাবাদ ও নদিয়ার গ্রামগুলোতে লুকিয়ে থাকে।
ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘সালাউদ্দিন কুচবিহারের গীতলদহ গ্রামে ধর্মীয় শিক্ষক হওয়ার চেষ্টা করেছিল। আমরা ওই গ্রামে অভিযান চালাই। কিন্তু আমাদের পৌঁছানোর একদিন আগে সে পালিয়ে যায়। এই জঙ্গি মুর্শিদাবাদ জেলার মুকিমনগর গ্রামের একটি বাড়িতেও লুকিয়ে ছিল। সেখানে অভিযান চালিয়ে একটি স্লিপ উদ্ধার করি আমরা। গত সপ্তাহে কুচবিহারের চ্যাংড়াবান্ধা গ্রামে অভিযান চালাই। কিন্তু তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। সেখানে এনআইএ তার এক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি