জনগণের দোরগোড়ায় ভূমি সেবা পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : শরিফুল হক

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০২২, ১:২২ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক :


বর্তমান সরকার ভূমি সেবায় আপসহীন উল্লেখ পূর্বক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মুহাম্মদ শরিফুল হক বলেছেন, ‘জনগণের দোরগোড়ায় ভূমি সেবা পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর’। জনগণ যেন কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে রাজশাহী জেলা ও উপজেলা প্রশাসন আন্তরিকতার সহিত কাজ করছে।

সেই লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবপোর্টাল উন্মুক্তকরণ, ই-নামজারি বাস্তবায়ন, ভূমিসেবা ডিজিটাইজেশন, উপজেলায় ভূমি সেবা সপ্তাহ ও ভ্রাম্যমান ভূমি সেবাসহ বিভিন্ন ব্যতিক্রম উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন। এতে করে জনগণের দুর্ভোগ লাগব হচ্ছে এবং সময় ও অর্থ দু’টোই বাঁচছে।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে উজানখলাসী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে ‘কার্যকরী ও দক্ষ ভূমি প্রশাসন এবং জনগণের দোরগোড়ায় ভূমি সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে জনগণের সাথে মতবিনিময় সভা’য় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

উল্লেখ্য, গণশুনানি শেষে তিনি দেবীপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৩য় পর্যায়ের উপকারভোগীদের খোঁজখবর নেন। পাশাপাশি দেবীপুরে ৪থ পর্যায়ের ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহারের গৃহনির্মাণ কাজের অগ্ৰগতি পরিদর্শন করেন।

উপস্থিত সুবিধাভোগীদের উদ্দেশ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মুহাম্মদ শরিফুল হক বলেন, ‘জনভোগান্তি কমাতে দেশের ভূমি ব্যবস্থাপনা ও রেকর্ড রুমসহ সরকারি অন্যান্য অফিসগুলোকে ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হয়েছে। এতে করে জনগণের সেবার মান আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। ’

ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘কাঙ্খিত সেবা নিশ্চিত করতে সেবাদাতা ও গ্রহীতার মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনা হয়েছে। একই সঙ্গে ভূমি অফিসে যারা কাজ করছেন তাদেরকে জনবান্ধব হয়ে সেবার মান বৃদ্ধি করতে হবে। এছাড়া ভূমি অফিসে জনভোগান্তি কমিয়ে সেবার মান আরো কিভাবে গতিশীল ও নিশ্চিত করা যায় সে ব্যাপারে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সতর্ক থেকে আন্তরিকভাবে কাজ করার আহবান জানান তিনি। ’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে আরো বেশি দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে। এতে করে সরকারের রূপকল্প ‘ভিশন ২০২১’ বাস্তবায়ন হবে।’

রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, দূর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এসিল্যান্ড (অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) মো. সোহেল রানা।
এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল আলম, পানানগর ইউপি চেয়ারম্যান আজাহার আলী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাহাবুবা আখতার।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো নিশিত কুমার প্রামানিক, উপজেলা ভূমি অফিসের নাজির মনিরুল ইসলাম, জমা সহকারি আনোয়ার হোসেন, উজানখলসী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহসীলদার আব্দুল ওয়াহেদ, সহকারি তহসীলদার মন্জুর হাসান, দেবীপুর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক অফিসের অফিস সহায়ক হাসিবুল ইসলাম, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আ. আজিজ, আজগর আলী, এছাড়াও বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত জনসাধারন উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত বিভিন্ন শ্রেণী পেশার জনসাধারণ তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মুহাম্মদ শরিফুল হক তাদের সমস্যা সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস প্রদান করেন।

এসময় উপজেলার দাওকান্দি গ্রামের ৭২ বছর বয়সী ফজলুর রহমান জানান, নবায়নের জন্য প্রতি বছর ১০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে উপজেলা ভূমি অফিসে গিয়ে নবায়ন করতে হতো। এতে অনেক সময় ও অর্থের অপচয় হতো। কিন্তু এ বছর বাড়ির কাছে বসে মাত্র একঘন্টায় সে কাজ হয়েছে। ফজলুর রহমান আবেগে আপ্লæত হয়ে বলেন, আমার ৭২ বছর বয়সে এমন সেবা কখনও পাইনি।

অপর একজন সুবিধাভোগী কানপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী শিবলী সরকার (৫৬) জানান, ভূমি সেবা সপ্তাহের মাধ্যমে আমরা যে সেবাটা পাচ্ছি তা অবশ্যই প্রশংসনীয়।