জনপ্রতিনিধিদের সিদ্ধান্তের বাইরে কাজ করবো না || সংবাদ সম্মেলনে এমএ সরকার

আপডেট: ডিসেম্বর ২৭, ২০১৬, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার বলেছেন, রাজশাহীর অর্থনৈতিক ও সামাজিক অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখতে তিনি নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। নির্বাচিত হলে তিনি জেলা পরিষদকে গতিশীল করে তুলবেন। গতকাল সোমবার বেলা ১২টায় নগরীর নানকিং দরবার হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
সংবাদ সম্মেলনে আ’লীগের প্রবীণ নেতা এমএ আলী বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে জেলা পরিষদের উন্নয়ন করবেন।  জেলা পরিষদ হবে স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিদের আশা-ভরসার প্রতীক। আমি নির্বাচিত হলে জেলা পরিষদের সঙ্গে স্থানীয় সরকারের সকল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করবো। তাদের সঙ্গে নিয়েই চালাবো জেলা পরিষদ। জনপ্রতিনিধিদের সিদ্ধান্তের বাইরে একটি কাজও করবো না। জেলা পরিষদে যথাযথ সম্মান করা হবে তাদের।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, জেলার অবকাঠামো উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে জেলা পরিষদ। আমি নির্বাচিত হতে পারলে জেলা পরিষদের বরাদ্দ সুষমভাবে বণ্টন করবো। প্রয়োজনে পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলরদের ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের ডেকে এনে তার এলাকার বরাদ্দ বুঝিয়ে দেব। শহরের ভেতরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে সমন্বয় করবো। জেলা পরিষদে যারা সদস্য ও নারী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আসবেন, তাদের মাধ্যমেই সব বরাদ্দের সুষ্ঠু বণ্টন করবো।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, লিয়াকত আলী, ছেলে আহসান উদ্দিন সরকার জিকো ও কর্মী-সমর্থকরা। আগামী বুধবার নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। জেলার ১৫টি ভোটকেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। রাজশাহী সিটি করপোরেশনসহ জেলার সবগুলো পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা এই নির্বাচনের ভোটার। মোট ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ১৭১ জন।