জমে উঠেছে রাজশাহী আইনজীবী সমিতির নির্বাচন নির্বাচন ১৬ মার্চ, লড়াইয়ে দুই প্যানেল

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


জমে উঠেছে রাজশাহী আইনজীবী সমিতির নির্বাচন। নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামি ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার। এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুইটি প্যানেল। প্রতিদ্বন্দ্বী দুটি প্যানেলের প্রার্থীরা সাধারণ আইনজীবী ভোটারদের মন জয় করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। করছেন কুশল বিনিময়। আইনজীবীদের জীবন ও জীবিকার মান উন্নয়নে দিচ্ছেন প্রতিশ্রুতি। বাস্তবায়ন করতে চাইছেন পূর্বের অসম্পূর্ণ কাজ। এর ফলে আদালতপাড়ায় বিরাজ করছে ভোট উৎসব।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী আইনজীবী সমিতির এবারের নির্বাচনে পৃথক দু’টি প্যানেলে ৪৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আলাদা দু’টি প্যানেলে ৪২ জন এবং পৃথকভাবে আরও ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্যানেল দুটি হচ্ছে, আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত লোকমান আলী-একরামুল হক এবং বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ মনোনীত মোজাম্মেল হক-আফতাবুর রহমান প্যানেল।
আগামি ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল নয়টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত এবং দুপুর দুইটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হবে। মাঝে দুপুর একটা থেকে দুইটা এক ঘণ্টা নামাজ এবং দুপুরের খাবারের জন্য বিরতি থাকবে। ভোটগ্রহণ শেষে রাতে ফল ঘোষণা করা হবে।
নির্বাচন কমিশনার এবিএম মশিউজ্জামান জানান, এবার ২১টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সভাপতি পদে একজন, সহসভাপতি তিনজন, সাধারণ সম্পাদক একজন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দুইজন, হিসাব সম্পাদক একজন, লাইব্রেরি সম্পাদক একজন, সম্পাদক অডিট একজন, সম্পাদক প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন একজন, সম্পাদক ম্যাগাজিন অ্যান্ড কালচার একজন এবং সদস্য পদে নয়জন রয়েছেন। নির্বাচনে মোট ৫শ ৫৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।
নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট একরামুল হক বলেন, সাধারণ আইনজীবীরা যেন নির্বিঘ্নে কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই প্রাকটিস করতে পারেন, সে বিসয়টি নিশ্চিত করা হবে। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশীল আইনজীবী সমিতি গড়তে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এছাড়া আইনজীবী সমিতি ভবনের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা হবে। কিছু সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার ভিত্তিতে আমরা নির্বাচনে লড়ছি। নির্বাচনে বিজয়ী হলে আমরা সাধারণ আইনজীবীদের স্বার্থে কর্মসূচিভিত্তিক পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন করবো।
নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ মনোনীত সভাপতি প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোজাম্মেল হক বলেন, আমরা ধারাবাহিকভাবে হক আট থেকে দশ বছর থেকে নির্বাচিত হচ্ছি। এ জয়ের ধারা অব্যাহত রাথতে চাই। নির্বাচনে আমাদের কিছু প্রতিশ্রুতি রয়েছে। এর মধ্যে প্রবীণ আইনজীবী যারা অবসরে যাবেন, তাদের অবসরকালীন টাকা বৃদ্ধি করা। আইনজীবী সমিতির ভবনগুলোর উন্নয়ন করা এবং জুনিয়র আইনজীবীরা যেন উৎসব ভাতাসহ আরো বেশি সুবিধাভোগ করেন তার ব্যবস্থা করা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ