জলবায়ু সম্মেলন: ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৪২৩ মিলিয়ন ডলার দুর্যোগ তহবিলের প্রতিশ্রুতি

আপডেট: ডিসেম্বর ১, ২০২৩, ৪:৫১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


জলবায়ু সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনেই ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৪২৩ মিলিয়ন ডলার দুর্যোগ তহবিলের প্রতিশ্রুতি মিলেছে। সম্মেলনের আয়োজক দেশ আরব আমিরাত, জার্মানি, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর)সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে শুরু হয়েছে জাতিসংঘের শীর্ষ জলবায়ু সম্মেলনের ২৮তম আসর।
প্রতিশ্রুতির মধ্যে, সংযুক্ত আরব আমিরাত ১শো মিলিয়ন ডলার তহবিলে দিবে। এছাড়াও যুক্তরাজ্য ৫১ মিলিয়ন ডলার, যুক্তরাষ্ট্র ১৭ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার, জাপান ১০ মিলিয়ন ডলার, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ২৪৫ দশমিক ৩৯ মিলিয়ন ডলার এবং জার্মানি ১শোি মিলিয়ন ডলার তহবিল দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

জলবায়ুতে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলো সব মিলে প্রায় ৪২৩ দশমিক ৮ মিলিয়ন ডলার তহবিল পাওয়ার আশা করছে, যার মধ্যে বাংলাদেশও আছে।
গত বছর মিশরের শার্ম এল-শেখ-এ অনুষ্ঠিত জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলনে ক্ষতিপূরণ তহবিলের একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছিল। সেখানে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় উন্নত দেশগুলো উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তারপরই ক্ষতিপূরণ তহবিল আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হয়।

সম্মেলনের উদ্বোধনীর শুরুতেই কপ-এর বিদায়ী সভাপতি স্মরণ করেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত জলবায়ু বিশেষজ্ঞ প্রয়াত অধ্যাপক সালিমুল হককে। এ বছর সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন বিশ্বের ১৯৮টি দেশের প্রায় ৭০ হাজার মানুষ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কপ-২৮ এর সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট সুলতান আহমেদ আল জাবির। এ সময় তিনি দাবি করেন, ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর সমস্যা ধনী দেশগুলো অনুধাবন করতে পারছে।

তবে অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এ সময়ে তহবিলের প্রয়োজন কয়েক ট্রিলিয়ন ডলার। তবে আশার কথা কপ-২৮ সম্মেলনের কয়েক সপ্তাহ আগে ধনী এবং দরিদ্র দেশগুলো তহবিলে বিদ্যমান পার্থক্য দূর করতে মূল জায়গায় ঐকমত্য হয়।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি