জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চান পবার কৃষক

আপডেট: জুলাই ১৭, ২০১৭, ১:০৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহীর পবায় তেঘরে অপরিকল্পিত পুকুর খননের জন্য পানি নিস্কাশন বন্ধ হওয়ায় দুইশ বিঘা জমির খেত তলিয়ে গেছে। একারণে উপজেলা প্রশাসনে পানি নিষ্কাশনে আবেদন করা হয়েছে। গতকাল রোববার বিকালে পবা উপজেলার অতিরিক্তি দায়িত্বে থাকা নির্বাহী কর্মকর্তা হামিদুল ইসলামের হাতে এ আবেদন দেয়া হয়। শিক্ষক মাহবুবুর রহমান দুলাল জলাবদ্ধ এলাকার ভুক্তভোগিদের পক্ষ থেকে এ আবেদন করেন।
আবেদন থেকে জানা গেছে, উপজেলার নওহাটা পৌরসভার তেঘর-বসন্তপুর মহল্লার মাঝখানে সম্প্রতি একটি পুকুর খনন করা হয়। আলহাজ্ব ওবাইদুল হক এই পুকুরটি খনন করেন। বর্ষায় জলাবদ্ধতার আশঙ্কায় পুকুরটি খনন না করার জন্য উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দফতরে সেসময় আবেদন করা হয়। এমনকি বাধা দেয়ার জন্য পুলিশকেও অনুরোধ জানানো হয়। অজানা কারণে কোন প্রশাসনই পুকুর খনন বন্ধে পদক্ষেপ নেয় নি। এতে ওই এলাকার তেঘর, বসন্তপুর, করমজা, থালতা, বাগসারা, কুমড়াপুকুর, উলাপুর গ্রামের মাঠের পানি নিস্কাশন পথ বন্ধ হয়ে যায়। প্রেক্ষিতে একদিনের বৃষ্টিতেই তলিয়ে গেছে প্রায় দু’শো বিঘা জমির ফসল। জমির ফসল তলিয়ে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তিনশ পরিবার। এখনই পদক্ষেপ না নিলে এবং আর একটু বৃষ্টি হলে ওই এলাকার অনেক বাড়ি-ঘর ডুবে যাবে। পাশাপাশি জমিতে পানি থাকায় অন্য আবাদও করতে পারবে না চাষিরা। ভবিষ্যত চিন্তায় তারা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।
এ ব্যাপারে দায়িক্ব উপজেলা নির্ব্হাী কর্মকর্তা হামিদুল ইসলাম বলেন, বিষয়চি উর্ধ্বতস কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে। তাদের নির্দেশক্রমে খুব দ্রুত জলাবদ্ধতার বিষয়টি সমাধান করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ