জাতিকে মেধাশূন্য করতে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয় : লিটন

আপডেট: আগস্ট ২৬, ২০১৭, ১:৩৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন নগর আ’লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ অতিথিরা-সোনার দেশ

নগরীতে বধ্যভূমির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আ’লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, বাংলাদেশ যখন একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছিল, ঠিক তখনই নবাগত এই রাষ্ট্রকে মেধাশুন্য করে দিতে নির্বিচারে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা শুরু করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। সেইসব শহিদের স্মৃতিকে বুকে ধরে আজও দাঁড়িয়ে আছে অসংখ্য বধ্যভূমি, যেখানে ইতিহাস থমকে দাঁড়ায়। গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টায় হাদির মোড় এলাকায় বধ্যভূমির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সাবেক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় পাক হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকার, আল-বদর, আল-শামস্ সাধারণ নাগরিক, মুক্তিযোদ্ধা, বুদ্ধিজীবী, সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবী ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের ধরে নিয়ে হত্যার জন্য কিছু নির্দিষ্ট স্থানকে ব্যবহার করতো। যেগুলো পরবর্তীতে বধ্যভূমি হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, নগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল ও অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা। অ্যাডভোকেট আবদুুল হাদীর সভাপতিত্বে বধ্যভূমির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীসহ এলাকার শতাধিক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ